মেইন ম্যেনু

অগ্রণী ব্যাংকের ভল্ট ভেঙে ২১ লাখ টাকা লুট

যশোর শহরতলীর রাজারহাটের অগ্রণী ব্যাংকের শাখা থেকে ২১ লাখ টাকা লুট করেছে ডাকাত দল। ডাকাতরা ব্যাংকের দুই নৈশপ্রহরীকে বেঁধে ভল্ট ভেঙে নগদ ২১ লাখ টাকা ও বন্দুকের পাঁচ রাউন্ড গুলি নিয়ে গেছে।

শুক্রবার সকালে খবর পেয়ে পুলিশ ও ব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

ব্যাংকের ব্যবস্থাপক নারায়ণ চন্দ্র পাল জানান, ডাকাতরা বৃহস্পতিবার গভীর রাতে ব্যাংকের পূর্ব পাশের ভল্ট সংলগ্ন জানালার গ্রিল কেটে ভেতরে প্রবেশ করে। তারা অস্ত্রের মুখে নৈশপ্রহরী সাইদুর রহমান ও বিশ্বজিত বিশ্বাসকে বেঁধে ফেলে। এর পর তাদের সঙ্গে নিয়ে যাওয়া গ্যাস সিলিন্ডার দিয়ে ব্যাংকের ভল্ট কেটে ভেতরে রক্ষিত ২১ লাখ টাকা নিয়ে একই পথ দিয়ে বেরিয়ে যায়।

পুলিশ বলছে, ব্যাংকের ভল্টে ১০ লাখ টাকার বেশি না রাখার নির্দেশনা থাকার পরও অগ্রণী ব্যাংকের এ শাখায় কেন ২১ লাখ টাকা রাখা হল। গ্যাস সিলিন্ডার দিয়ে ডাকাতরা যখন জানালার গ্রিল কাটছিল তখন প্রহরীরা চিৎকার না দিয়ে চুপচাপ ছিল। তারপর ডাকাতরা গ্যাস সিলিন্ডার সঙ্গে নিয়ে গেলেও তা ভল্ট সংলগ্ন জানালা সোজা নিচেই ছিল। সেখান থেকে পাইপ কি পরিমাণ হলে ভল্ট কাটা যাবে। এই ধারণা করে পাইপ দিয়ে গ্যাস ব্যাংকের ভেতরে নিয়ে ভল্ট ভাঙে ডাকাতরা। এমনকি যাওয়ার সময় সিসি ক্যামেরাটিও খুলে নিয়ে যায়।

এ ব্যাপারে যশোরের পুলিশ সুপার আনিসরু রহমান জানান, আমরা সকালে খবর পেয়েছি। ডিবি, পিবিআইয়ের পাশাপাশি কোতোয়ালি থানার কয়েকটি টিম এ ঘটনার তদন্ত করছে। তাই এ বিষয়ে এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না।






মন্তব্য চালু নেই