মেইন ম্যেনু

অতিরিক্ত ওষুধ প্রয়োগেই গায়ক প্রিন্স`র মৃত্যু

ব্যথানাশক ওষুধের অতিরিক্ত প্রয়োগেই মার্কিন গায়ক প্রিন্স-এর মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। ফেন্টানিল নামের একটি সিনথেটিক ওষুধের অতিরিক্ত প্রয়োগ হয়েছিল প্রিন্সের শরীরে। ওষুধটি হেরোইনের চেয়েও ৫০ গুণ বেশি শক্তিশালী। সাধারণত কোনো সার্জারির পরে এই ওষুধ খেতে বলা হয়।

গায়ক প্রিন্সের মৃত্যুর প্রায় মাসখানেক পর তার মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে নিশ্চিত তথ্য পাওয়া গেল। বিবিসি বাংলার সংবাদে বলা হয়েছে, গোয়েন্দারা ইতোমধ্যে একজন চিকিৎসককে প্রিন্স-এর মৃত্যুর বিষয় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেছেন। ওই চিকিৎসক ৫৭ বছর বয়সী প্রিন্সকে সপ্তাহে দুইবার দেখতেন।

পুলিশের তথ্য অনুযায়ী ড. মিশায়েল শুলেনবার্গ প্রিন্সকে গত ২০ এপ্রিল ওই ওষুধটি গ্রহণ করার পরামর্শ দিয়েছিলেন। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট অনুযায়ী, প্রিন্স নিজ উদ্যোগে ফেন্টানিল গ্রহণ করেছিলেন।

গত ২১ এপ্রিল ভোরে যুক্তরাষ্ট্রের মিনেসোটায় পেইসলি পার্ক স্টুডিওসের একটি লিফটের ভেতরে গায়ক প্রিন্স-এর নিঃসাড় দেহ পড়ে থাকতে দেখা যায়।

মার্কিন পপ-তারকা প্রিন্স সুরকার ও সফল সঙ্গীত রচয়িতাও ছিলেন। কর্মজীবনে তিনি ত্রিশটিরও বেশি অ্যালবাম প্রকাশ করেছেন।






মন্তব্য চালু নেই