মেইন ম্যেনু

‘অনিবন্ধিত সিম বন্ধ না হলে জরিমানা’

সারা দেশের মোবাইল গ্রাহকদের মধ্যে ১১ কোটি ৬০ লাখ গ্রাহক বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন করেছেন বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। একইসঙ্গে তিনি জানিয়েছেন, অনিবন্ধিত প্রতিটি খোলা সিমের জন্য মোবাইল অপারেটদের ৫০ ডলার করে জরিমানা করা হবে।

শুক্রবার সকালে ফেসবুকে তারানা হালিমের ভেরিফাইড পেজ থেকে দেয়া একটি স্ট্যাটাসে এসব জানানো হয়েছে।

স্ট্যাটাসে তারানা হালিম বলেছেন, গতকাল আমি ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগে সকল মোবাইল অপারেটরদের সিইও, বিটিআরসির প্রতিনিধিদল, আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর প্রতিনিধিদল এবং অন্যান্য সংশ্লিষ্ট সকলকে নিয়ে একটি আলোচনা সভা করি। উক্ত সভার কিছু সিদ্ধান্ত আপনাদের মাঝে তুলে ধরলাম:-

সিম নিবন্ধনের কাজ ভালভাবে সম্পন্ন হয়েছে। ১১ কোটি ৬০ লাখ গ্রাহক তাদের সিম বায়োমেট্রিক্স পদ্ধতিতে নিবন্ধন করে তাদের নাগরিক দায়িত্ব পালন করেছেন।

স্ট্যাটাসে আরো বলা হয়ছে, এখন আমাদের দায়বদ্ধতার জায়গা থেকে- আমরা ০৭ ই জুলাই, ২০১৬ হতে সকল মোবাইল অপারেটরদের মাধ্যমে কার কতটি সিম, কোন অপারেটর এর তার জাতীয় পরিচয়পত্রের (NID) বিপরীতে নিবন্ধিত হয়েছে তা প্রতিটি গ্রাহককে জানিয়ে দেওয়া হবে।

Tarana-post20160610055159

আগামী সপ্তাহ থেকেই আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর (পুলিশ-র্যাব) বিশেষ অভিযান পরিচালনার জন্য স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে অনুরোধ জানানো হবে- কোথাও কোন প্রকার প্রিএক্টিভ সিম, অথবা ভেরিফাইড না করা সিম বন্ধ না পাওয়া গেলে সংশ্লিষ্ট অপারেটরকে সিম প্রতি ৫০ ইউএস ডলার করে জরিমানা করা হবে।

বায়োমেট্রিক পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধনের ফলে গুলশান থানায় মোবাইল ফোন ব্যবহার করে সংঘঠিত অপরাধের অভিযোগ কমেছে বলেও জানিয়েছেন তারানা হালিম। তিনি বলেছেন, আপনারা জেনে খুশি হবেন যে, এক গুলশান থানাতেই মোবাইল ফোন ব্যবহার করে সংঘটিত অপরাধের অভিযোগ আগে যেখানে প্রতিদিন সর্বনিম্ন ২০টি করে আসতো সেখানে বায়োমেট্রিক্স পদ্ধতিতে সিম নিবন্ধন সম্পন্ন করার পর গত ০১লা জুন থেকে ০৭ই জুন এ ধরনের একটি মাত্র অভিযোগ দায়ের হয়েছে যা আসলেই আমাদের আনন্দিত করে।

পাশাপাশি বিটিআরসির হিসাব মতে, ১ জুন থেকে ৭ জুন অবৈধ ভিওআইপির পরিমাণ নজিরবিহীনভাবে কমে গেছে; যার ফলে সরকারের রাজস্ব আয়ও বৃদ্ধি পেয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই