মেইন ম্যেনু

অনেক বেশি খেয়েও সুস্থ থাকার উপায়

উৎসবে আনন্দে মানুষ বেশি খাওয়া দাওয়া করে। কোরবানীর ঈদ এলেই বেশি বেশি খাওয়া হয় মাংস। অনেকেই বেশি খেয়ে হয়ে যায় অসুস্থ। অনেক বেশি খেয়েও সুস্থ থাকার উপায় জেনে নিই চলুন।

১। চর্বিহীন মাংস খান

মাংস রান্না করার পূর্বেই মাংস থেকে কেটে ফেলে দিন অতিরিক্ত চর্বি। কারণ ওজন বৃদ্ধি এবং বিভিন্ন রোগের জন্য দায়ী এই চর্বি। সুস্থ থাকার জন্য বেঁছে নিন চর্বিহীন মাংস।

২। কম তেলে রান্না করুন

মাংসের সাথে লেগে থাকা অতিরিক্ত চর্বি ফেলে দিলেও মাংসের ভেতরেও চর্বি থাকে। তাই মাংস রান্নার সময় বেশি তেল না দেয়াই ভালো। তাই মাংস রান্না করুন কম তেলে।

৩। সবজি খান

রিচ ফুড খাওয়ার সাথে সাথে সবজিও খেতে হবে যদি সুস্থ থাকতে চান। খেতে পারেন সালাদ বা সবজির তরকারী।

৪। লেবু ও উষ্ণ পানি

রাতে অনেক বেশি খেয়ে ফেলার পর যদি সকালে উঠেও অস্বস্তি অনুভব করেন তাহলে ১ গ্লাস কুসুম গরম পানিতে লেবুর রস মিশিয়ে পান করুন। এটি পরিপাক তন্ত্রের জন্য চমৎকার কাজ করে। এটি ইমিউন সিস্টেমকে উদ্দীপ্ত করতে সাহায্য করে এবং pH এর ভারসাম্য রক্ষা করে। এছাড়াও শরীর থেকে বিষাক্ত পদার্থ বের করে দিতেও সাহায্য করে লেবু পানি।

৫। পানি পান করুন

অনেক বেশি খেয়ে অস্বস্তি অনুভব করলে অনেকেই কফি পান করেন। কিন্তু কফির ক্যাফেইন শরীরকে পানি শুন্য ও ক্লান্ত করে দিতে পারে। তাই পান করুন পানি। পানি পান করলে আপনার শরীরের কোষগুলো উজ্জীবিত হবে এবং অন্ত্রের বর্জ্য বের হয়ে যেতে সাহায্য করবে।

৬। পরিপাক তন্ত্রকে বিশ্রাম দিন

একদিন একটু যদি বেশিই খেয়ে ফেলেন তাহলে পরের দিন শুধু স্যুপ বা স্মুদি পান করুন। এর ফলে শক্ত খাবার হজমের উপযোগী করার জন্য পাকস্থলীকে যে পরিশ্রম করতে হয় তা থেকে বিশ্রাম পাবে পরিপাকতন্ত্র। স্মুদিতে যোগ করুন সবুজ শাক এবং স্যুপে ব্যবহার করুন রসুন ও পেঁয়াজ।

৭। ব্যায়াম করুন

অস্বস্তি দূর করার আরেকটি ভালো উপায় হচ্ছে ব্যায়াম করা। বাহিরে হেঁটে আসুন কিছুক্ষণ অথবা ইয়োগা করুন। এর ফলে শরীরের বিষাক্ত পদার্থ বের হয়ে যাবে এবং এন্ডোরফিনের নিঃসরণ বৃদ্ধি পাবে। এর ফলে আপনি ঝরঝরে অনুভব করবেন।






মন্তব্য চালু নেই