মেইন ম্যেনু

অনৈতিক কাজে লিপ্ত অভিনেত্রী ‘রিচি’

দেশীয় শোবিজ তারকারা নাটক বা চলচ্চিত্রে প্রেম, পরকীয়া, অসম প্রেম ও বিয়ে বহির্ভূত সম্পর্কের নানা চরিত্রে অভিনয় করেন। এই অভিনীত চরিত্রগুলো কখনো কখনো তাদের বাস্তব জীবনেও প্রভাব ফেলে। তাই মাঝে মাঝেই সংসার ভাঙার কবলে পড়েন তারকারা। কেউ কেউ পুরনো সম্পর্কের পাঠ চুকিয়ে নতুন মানুষের সঙ্গে জীবনের দ্বিতীয় বা তৃতীয় ইনিংস শুরু করে কখনো সুখী হন, আবার কেউ হন না।

দাম্পত্য জীবনে চরম অসুখী থাকলেও কেউ কেউ টিভি অনুষ্ঠানে ঠোঁটে হাসি ছড়িয়ে ভক্ত-দর্শকদের জানান দেওয়ার চেষ্টা করেন ‘আমি সুখে আছি, ভালো আছি’। এ যেন আরেক অভিনয়। বছর তিনেক ধরেই তেমনই অভিনয় করে যাচ্ছেন টিভি নাটকের অনেক জনপ্রিয় অভিনেত্রী রিচি সোলায়মান। একের পর এক পরকীয়াই রিচিকে এলোমেলো করে দিয়েছে।

বিশ্বস্ত একটি সূত্র জানিয়েছে, দাম্পত্যজীবনে সুখী হতে না পারার কারণে একের পর এক পরকীয়ায় পড়ছেন রিচি। মাঝে ‘ম’ আদ্যক্ষরের একজন অভিনেতা পরিচালকের সঙ্গে বিভিন্ন জায়গায় রিচিকে খুব ঘনিষ্ঠভাবে মেলামেশা করতে দেখা যায়। আর এ নিয়ে তখন মিডিয়াপাড়ায় কানাঘুষা শুরু হয় যে, রিচি পরকীয়ায় আক্রান্ত।

বিষয়টি এই দুই তারকার কানে গেলেও তারা তা আমলে না নিয়ে নিজেদের সম্পর্ক ঠিক রেখে এগিয়ে গেছেন। রিচি ও সেই অভিনেতা পরিচালকের ঘনিষ্ঠ সম্পর্কের কথা তার স্ত্রীর কানে গেলে তিনি স্বামীকে কুপথ থেকে সুপথে নিয়ে যান। ফলে রিচি কিছুদিন একলা চলো নীতি অনুসরণ করেন। এরপর ফের পরকীয়ার রোগে পেয়ে বসে রিচিকে।

এখন তার পরকীয়ার নতুন নায়ক টিভি নাটক নির্মাতা গোলাম সোহরাব দোদুল। এই পরিচালকের নাটকে কাজ করতে গিয়েই তার সঙ্গে নতুন সম্পর্ক গড়ে ওঠে রিচির।

২০১৪ সালে দোদুল পরিচালিত দেশটিভিতে প্রচারিত ‘সাতকাহন’ শিরোনামের একটি নাটকের কাজে রিচি মানিকগঞ্জে গেলে তাদের সম্পর্কটা নতুন মাত্রা পায়। এ নাটকের সঙ্গে যুক্ত থাকা একটি সূত্র জানিয়েছে, দোদুল পরিচালিত নাটকের শুটিংয়ে গিয়ে রিচি কাজের চেয়ে পরিচালকের সঙ্গে বিশেষভাবে সময় কাটিয়েছেন বেশি। শুধু তাই নয়, রিচি ও দোদুল শুটিং স্পটের নিকটবর্তী একটি হোটেলের একই রুমে রাত কাটিয়েছেন বলেও গুঞ্জন রয়েছে। রিচির সঙ্গে একের পর এক অভিনেতা ও পরিচালকের ঘনিষ্ঠ সম্পর্কের কথা শুধু মিডিয়াতেই চাউর হয়নি। একই বছরের শেষের দিকে এই দুঃসংবাদ রিচির আমেরিকা প্রবাসী স্বামী রাশেক মালিকের কানেও পৌঁছে যায়।

ফলে রাশেক তা মেনে নিতে না পেরে কয়েকটি গণমাধ্যমের কাছে রিচিকে নিয়ে নেতিবাচক নানা কথা বলেছেন। তিনি বলেছেন, রিচি খারাপ চরিত্রের একজন নারী। এ কারণে স্বামীর সংসার তার ভালো লাগে না। স্বামীর সঙ্গে আমেরিকা থাকলে তিনি তার অনৈতিক ইচ্ছে বাস্তবায়ন করতে পারবেন না বলে স্বামীকে একা রেখে বাংলাদেশে বসবাস করছেন। বিষয়টি রিচিকে তখন বিব্রতকর অবস্থায় ফেললে তিনি নানাভাবে তা ধামাচাপা দেন।

তবে শুটিং স্পটে রিচিকে নিয়ে মুখরোচক গল্প এখনো চলছেই। যেমন চলছে তার পরকীয়া। এই টিভি তারকাকে নিয়ে একের পর এক নেতিবাচক ঘটনা ভক্তমহলে তাকে বিতর্কিত করেছে। এ বিষয়ে জানতে রিচির মোবাইলে কল করা হলে তা বন্ধ পাওয়া যায়।বিডি২৪লাইভ






মন্তব্য চালু নেই