মেইন ম্যেনু

অন্যের মাধ্যমে পাঠানো সালামের উত্তর

মানুষ পারস্পরিক অভিবাদনে সালাম দ্বারা ভাব বিনিময় করে থাকেন। অবশেষ বিদায় বেলায়ও সালাম আদান প্রদানের মাধ্যমে বিদায় নেয়। তখন পরিচিত লোকদেরকে সালাম পাঠান। আবার ফোনে কুশল বিনিময়ের এক পর্যায়ে পরিচিত লোকদেরকে সালাম জানান। এই সালাম দেয়া সুন্নাত আর উত্তর দেয়া ওয়াজিব।

সুতরাং সালাম যাকে দিয়ে যেভাবেই পাঠানো হোক না কেন, সালামের উত্তর দেয়া আবশ্যক। এই যে কারো মাধ্যমে কাউকে সালাম পাঠালে, অনেকেই সালামের উত্তর না জানার কারণে সালামের উত্তর দেয়া থেকে বিরত থাকে। যা গোনাহের কাজ। তাই কারো মাধ্যমে পাঠানো সালামের উত্তর দেয়ার নিয়ম তুলে ধরা হলো-

এক সাহাবা বলেন, আমার আব্বা আমাকে রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের নিকট পাঠালেন এবং বললেন, তুমি রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের নিকটে যাও এবং তাঁকে সালাম প্রদান কর। আমি রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের নিকটে গেলাম এবং বললাম, আমার আব্বা আপনাকে সালাম বলেছেন, তখন রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বললেন-

عَلَيْكَ وَعَلَي اَبِيْكَ السَّلَامُ
উচ্চারণ : আলাইকা ওয়া আলা আবিকাস-সালাম।
অর্থ : তোমার প্রতি এবং তোমার পিতার প্রতি সালাম বা শান্তি বর্ষিত হোক।’ (আবু দাউদ, মিশকাত)

অতএব সালাম দাতার জন্য এবং সালাম প্রেরণকারীর জন্য বলতে হবে-
عَلَيْكَ وَ عَلَيْهِ السّلَامُ
উচ্চারণ : আলাইকা ওয়া আলাইহিস সালাম)।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে সালাম প্রেরণকারীর সালামের উত্তর যথাযথভাবে দেয়ার তাওফিক দান করুন। আমিন।






মন্তব্য চালু নেই