মেইন ম্যেনু

অবশেষে খুলে দেয়া হলো শালিখার চিত্রা নদীর নারিকেল বাড়ীয়ার ঘাটের সেতু

মাগুরা প্রতিনিধিঃ মাগুরার শালিখার চিত্রা নদীতে নারিকেল বাড়ীয়ার ঘাটে সেতু নির্মাণ ৯ মাস আগে শেষ হলেও খুলে না দেয়াই জনর্দুভোগ চরমে উঠেছিল । মানুষের চরম দূর্ভোগের বিষয়টি নিয়ে সম্প্রতি বিভিন্ন সংবাদ পত্রে সচিত্র প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়। এছাড়া ব্রীজটি খুলে দেয়ার দাবীতে গত ১৬ র্মাচ সীমাখালীর ভাঙ্গা ব্রীজের দক্ষিন পাড়ে এক গনসমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়।

অতঃপর গত ১৭ র্মাচ শুক্রবার ব্রীজটিতে লোক চলাচলের জন্য আংশিক খুলে দেয়া হয়েছে। এতে জনমনে ব্যাপক স্বস্তি লক্ষ্য করা যাচ্ছে। র্কতৃপক্ষের দায়িত্বশীল প্রতিনিধি জানিয়েছেন সকাল থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত ব্রীজটির একটা অংশ খুলে রাখা হবে যাতে সাধারনের চলাচলের দুর্ভোগ কিছুটা লাঘব হয়।

শালিখার কাদিরপাড়ার খেয়াঘাটে চিত্রা নদীর উপর ৯০ মিটার দৈর্ঘ্য সেতুটির নির্মান কাজ ১৬-১০-২০১৪ইং সালে শুরু হয়ে শেষ হয়েছে ৩০-০৬-২০১৬ ইং। চিত্রা নদীর দু পারের ১৬ টি গ্রামের মানুষ সেতুটি উদ্বোধনের অপেক্ষায় প্রহর গুনছে। কবে তাদের স্বপ্নের সেতুটি সম্পূর্ন খুলে দেয়া হবে এবং মানুষের দুর্ভোগ চিরতরে লাঘব হবে। ইতোমধ্যে সেতুকে কেন্দ্র করে নারিকেল বাড়ীয়া বাজারে সংযোগ সড়কের ২ পাশে অনেক দোকানপাট গড়ে উঠেছে।

সেতুটি চালু হলে মানুষের দূর্ভোগ যেমন কমবে তেমনি নারিকেল বাড়ীয়া বাজারের ব্যবসায়ীদের ঢাকায় যাতায়াত ও মালামাল পরিবহনের পথ সহজ হবে। এছাড়াও স্কুল, কলেজ,মাদ্রাসাগামী ছাত্র-ছাত্রী,চাকুরিজীবিসহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষের যাতায়াতের সুবিধা হবে। এলাকার অর্থনৈতিক উন্নয়নে সেতুটি সার্বিক ভূমিকা পালন করবে বলে এলাকাবাসি আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন।






মন্তব্য চালু নেই