মেইন ম্যেনু

অবশেষে ধরা খেলেন অভিনেত্রী মমতা কুলকার্নি

দেড়মাস আগেই মুম্বাই পুলিশ বলেছিল মমতা কুলকার্নি ড্রাগ পাচারের বড়সড় চক্রের সঙ্গে যুক্ত রয়েছেন৷ বিদেশে তো বটেই, ভারতেও ড্রাগ নিয়ে আসার ব্যাপারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে এককালে বলিউডের এই সুন্দরী নায়িকার৷ তবে হাতে সেই সময় যথেষ্ট প্রমাণ ছিল না পুলিশের৷ তাই মমতা কুলকার্নির বিরুদ্ধে কোনোরকম আইনি পদক্ষেপ করতে পারেনি তারা৷ কিন্তু, তদন্ত চলছিল৷ অবশেষে তারই প্রমাণ পাওয়া গেল।

ভারতের সবচেয়ে বড় ড্রাগ পাচার চক্রে যুক্ত আট জনকে গ্রেফতার করার পর তাদের জেরা করে পুলিশ জানতে পারল ভারতে ড্রাগ পাচারের নেটওয়ার্কের নিউক্লিয়াস এই বলিউড সুন্দরীই৷ আর তার ড্রাগ সাম্রাজ্যের নিয়ন্ত্রণ রয়েছে স্বামী ভিকি গোস্বামীর হাতে৷ বর্তমানে কেনিয়াবাসী মমতা কুলকার্নির উপর দীর্ঘদিন ধরেই কড়া নজর রেখেছিল পুলিশ ও গোয়েন্দারা৷

গোয়েন্দাদের দেয়া তথ্য মতে ১৮ জুন শনিবার নিশ্চিত করল গ্রেফতারকৃত ড্রাগ পাচারকারীরা৷ পুলিশকে তারাই জানিয়েছে, ভিকি গোস্বামীর ক’য়েক হাজার কোটি টাকার ড্রাগ সাম্রাজ্যের আসল মুখ মমতা কুলকার্নিই৷ তার বিরুদ্ধে রেড কর্নার নোটিশ জারি করতে চলেছে ইন্টারপোল৷






মন্তব্য চালু নেই