মেইন ম্যেনু

অবশেষে সেই নববধূ উদ্ধার

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ফিল্মি কায়েদায় অপহৃত নববধূ সুবর্ণা আক্তারকে অবশেষে উদ্ধার করেছে র‌্যাব।

গতকাল রবিবার গভীর রাতে র‌্যাব-১১ এর একটি দল নববধূকে উদ্ধার করে। একই সঙ্গে অপহরণের মূল হোতা তোফাজ্জলসহ তিনজনকে আটক করেছে বলেও জানায় র‌্যাব।

সোমবার দুপুরে নারায়ণগঞ্জের আদমজীতে অবস্থিত কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে র‌্যাব-১১ কমান্ডার লে. কর্নেল আনোয়ার লতিফ খান জানান, নবধূকে অপহরণের ঘটনার তিন দিন পর রবিবার রাতে গাজীপুরের কালিগঞ্জ এলাকা থেকে র‌্যাবের একটি দল ফাঁদ ফেলে তিন অপহরণকারীকে গ্রেপ্তার করে। উদ্ধার করা হয়েছে নববধূ সুবর্ণা আক্তারকেও।

গত ৯ অক্টোবর আড়াইহাজারের সাতগ্রাম ইউনিয়নের নোয়াগাঁও চৌধুরী বাড়ির আব্দুল লতিফের মেয়ে সুবর্ণা আক্তারের (১৮) সঙ্গে রূপগঞ্জ উপজেলার দাউদপুর পুটিয়া গ্রামের জহিরুল হকেরে ছেলে নাদিমের (২৫) বিয়ে হয়। ৬ নভেম্বর শুক্রবার সন্ধ্যায় তাদের বিয়ের অনুষ্ঠান শেষে কনের বাড়ি থেকে প্রাইভেটকার যোগে বর পক্ষ কনেকে নিয়ে রূপগঞ্জ নিজের বাড়িতে যাচ্ছিল। পথে উপজেলার রসুলপুর নামক স্থানে গেলে দুইটি সিএনজি অটোরিকশা বরের গাড়িটির সামনের দিক থেকে গতিরোধ করে। তারা বুঝে ওঠার আগেই ১৫/১৬ জন সন্ত্রাসী পিস্তল, চাপাতি, ছোরা নিয়ে বর নাদিমসহ তার সহযাত্রীদের পিটিয়ে নববধূ সুবর্ণাকে জোর করে সিএনজিতে তুলে মাধবদীর দিকে চলে যায়। এ সময় সন্ত্রাসীদের হামলায় বর নাদিমসহ ১০ জন আহত হয়।

এ ঘটনায় নববধূ সুবর্ণা আক্তারের পিতা শনিবার আড়াইহাজার থানায় টেকপাড়া এলাকার আওয়ামী লীগ নেতা হাতেম আলীর ছেলে মোফাজ্জল (২৪), জামাল উদ্দিনের ছেলে আলমগীর (২০), ইসমাইল মেম্বারের ছেলে রাকিব (১৯), ইব্রাহিমের ছেলে ইয়াছিন (২৫), ফারুকের ছেলে ফাহিম (২৩) ও রাসেল (২৪) সহ ১৫/১৬ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেন।






মন্তব্য চালু নেই