মেইন ম্যেনু

অবশেষে সৌদি আরবে বন্ধ হচ্ছে ফেসবুক, টুইটার, ইউটিউব

সৌদি আরবে সব ধরণের সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের কথা ভাবছে সরকার। বাদশাহ’র উপদেষ্টা কমিটি বিষয়টি গুরুত্ব সহকারে বিবেচনা করছে। এ নিষেধাজ্ঞার তালিকায় থাকতে পারে ফেসবুক, টুইটার, ইউটিউবসহ বেশ কিছু মাধ্যম। এক বিবৃতিতে একথা জানানো হয়েছে।

অপরাধ কমানোর কথা বলে বিশ্বের অনেক দেশেই সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়েছে, কিছু ওয়েবসাইট ব্যবহার করে ঘৃণা ও বিদ্বেষ ছড়ানো হচ্ছে। যা সমাজের জন্য ক্ষতিকর। এ ধরনের সব সাইটই ব্লক করে দেওয়া হবে। গুগল ও ইয়াহুর মতো সার্চ ইঞ্জিন শুধু বাণিজ্যিক কাজে ব্যবহারের জন্য নানা অফার দেয়। তারা এমন কোনও কাজ করে না বা অফার দেয় না আরবের জন্য লাভজনক।

সাইবার অপরাধ সংক্রান্ত একটি বিল আট বছর আগেই তৈরি করেছিল ওই উপদেষ্টা কমিটি। ওই বিলটিই সংশোধন করে উপস্থাপন করবে কমিটি। যেসব সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম বা ওয়েবসাইট সন্ত্রাসবাদের বিস্তার ও সমাজবিরোধী কর্মকাণ্ডে জড়িত তাদের বন্ধ করে দেওয়ার সুপারিশ করা হয়েছে।

এছাড়া কোনও ব্যক্তি যদি জঙ্গিবাদ, সন্ত্রাসবাদ, সাম্প্রদায়িক সংঘাতে জড়িত থাকে তাহলে তাকে ফাঁসি দেওয়ার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। এই বিলটি একারণেই গুরুত্বপূর্ণ যে সৌদিতে অনেক ইসলামিক স্টেট জঙ্গি আটক রয়েছে। এ বিলটি পাস হলে ওইসব জঙ্গিদের সাজা দেওয়া যাবে। ওইসব জঙ্গি স্বীকার করেছে তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করেই তাদের কর্মকাণ্ড চালাত।






মন্তব্য চালু নেই