মেইন ম্যেনু

অবৈধ অভিবাসী ধরতে যুক্তরাষ্ট্রের সাঁড়াশি অভিযান

অবৈধ অভিবাসীদের ধরতে সাঁড়াশি অভিযান শুরুর পরিকল্পনা নিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। তবে ঠিক কবে থেকে এ অভিযান শুরু হচ্ছে সে সম্পর্কে সুনির্দিষ্ট কোন তথ্য জানায়নি অভিবাসন কর্তৃপক্ষ। ধারণা করা হচ্ছে, চলতি মাসের মাঝামাঝি থেকে জুনে এ অভিযান শুরু হতে পারে। অবৈধ অভিবাসীদের বিরুদ্ধে এযাবতকালের এটি সবচেয়ে বড় অভিযান বলে মনে করা হচ্ছে।

এ বছরের জানুয়ারিতে জর্জিয়া, টেক্সাস এবং নর্থ ক্যারোলিনা অঙ্গরাজ্যে দুই দিনব্যাপী একইধরনের আরেকটি অভিযান চালানো হয়েছিল। ঐ অভিযানে ১২১ জনকে আটক করা হয়। আরক ব্যক্তিদের অধিকাংশই ছিল নারী ও শিশু।

অভিবাসীবিরোধী এই অভিযানের মূল লক্ষ্য হচ্ছে মধ্য আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রে আসা নারী ও তাদের সন্তানরা। অবৈধ এসব অভিবাসীদের ধরে নিজ দেশে ফেরত পাঠানো হচ্ছে মূল লক্ষ্য।

ইমিগ্রেশন এন্ড কাস্টমস এনফোর্সমেন্ট ইতিমধ্যেই মাঠকর্মীদের মাসব্যাপী এই অভিযানের ব্যাপারে নির্দেশনা দিয়েছে। তাদের লক্ষ্য এমন সব মা ও সন্তানেরা, যাদেরকে আগে যুক্তরাষ্ট্র ত্যাগ করতে বলা হলেও তারা সেটা অমান্য করেছে।

তাছাড়া যে সমস্ত মানুষ অপ্রাপ্তবয়স্ক অবস্থায় অভিভাবক ছাড়াই যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করার পর প্রাপ্তবয়স্ক হয়েছে তাদেরকেও এই অভিযানে অন্তর্ভুক্ত করা হবে বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

অভিযান ঠিক কবে থেকে শুরু হবে সেটা এখনো জানানো না হলেও অভিযানের খুঁটিনাটি পরিবর্তিত হতে পারে। এই ধরনের অভিযানের উদ্দেশ্যই হচ্ছে অবৈধ অভিবাসীরা যাতে যুক্তরাষ্ট্রে পাড়ি জমাতে নিরুৎসাহিত হয়।

অভিবাসী ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রে বেশ কিছুদিন যাবত হইচই হচ্ছে। রিপাবলিকান দলের প্রেসিডেন্ট মনোনয়নপ্রত্যাশী ডোনাল্ড ট্রাম্প ইতিমধ্যেই বহুবার অবৈধ অভিবাসী পরিবারসহ ফেরত পাঠানোর কথা বলেছেন।






মন্তব্য চালু নেই