মেইন ম্যেনু

অমিত ও নাসরিনের পহেলা বৈশাখের সেই ভিডিও প্রকাশ! (ভিডিও)

অমিত হাসান। এক সময়ের পর্দা কাপানো ৬শ ছবির হিরো এবং বর্তমান বাংলা ছবির খল নায়ক হিসেবে আমরা জানি। বর্তমানে অমিত হাসান বাংলাদেশ শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দ্বায়িত্বরত আছেন। গত ১লা বৈশাখে শিল্পী সমিতির আয়োজিত অনুষ্ঠানে অমিত হাসানের বিপক্ষে কিছু ভিন্নমত নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেন বাংলাদেশ চলচ্চিত্রের অভিনেত্রী নাসরিন।

অভিযোগ উঠেছিলো ‘ঘাড় ধাক্কা ও অপমান করে মঞ্চ থেকে নাসরিনকে নামিয়ে দিলেন অমিত হাসান’।

আসলে সেদিন কি হয়েছিলো সেটা জানতে যোগাযোগ করা হয় অমিত হাসান, নাসরিন, নূতন, কমল, শিবা শানু, শাহীন খান সহ বেশ কিছু চলচ্চিত্র অভিনেতা-অভিনেত্রীর সাথে। সেই দিনের একটি ভিডিও পাওয়া যায় অনুষ্ঠানে যাওয়া নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক ব্যাক্তির কাছ থেকে।

ভিডিওটি দেখে লেখাটি তুলে ধরা হলো: অমিত হাসান নাসরিনকে বলেন, ‘সিনিয়র শিল্পীরা এখানে বসে আছে। তুমি তো শিল্পী সমিতির ভেতরে বলতে পার এখানে মাইক হাতে কেন তুমি বলছো। তুমি এভাবে বলতে পারো না। তখন নাসরিন মঞ্চের নিচে থেকেই অমিত হাসানের কথার জবাব দিচ্ছিলেন। এ সময় অমিত হাসানকে বলতে শোনা যায়, তুমি বেয়াদবি করছো কেন। যা কিছু বলার সমিতির ভিরতে এসে বলবে।তুমি কিভাবে এটা করলে? আমি তোমাকে অনেক ভালোবাসি। যাও তুমি এখন।’

অনুষ্ঠানে কী হয়েছিল জানতে চাইলে নাসরিন বলেন, ‘অনুষ্ঠানের দুদিন আগেই আমাকে অমিত হাসান, শিবাশানু ও কমল দাদা ফোন করে বারবার অনুষ্ঠানে পারফর্ম করতে বলছিলেন। আমিও অনেক আগ্রহী ছিলাম। তখন নায়িকা দিতি আপার একটি ছবির গানের সঙ্গে নাচার জন্য প্রস্তুতি নিই। আমার সঙ্গে আমার স্বামীরও মঞ্চে পারফর্ম করার কথা ছিল।’

তিনি আরো বলেন, আমাকে অমিত হাসান বলেন বেয়াদব, এসব কোথা থেকে আসছে। আসলে আমার সাথে যে ব্যবহার-আচরণ করেছে তাতে মানুষ অমিত ভাইকে বিয়াদব বলবে। এখন তিনি বিচার করুক বিয়াদব কে।

বিষয়টি নিয়ে জানতে চাইলে বাংলা চলচ্চিত্রের অভিনেতা শাহিন খান বলেন, নাসরিন তো বেয়াদবি করেছে। আমরা সেখানে উপস্থিত ছিলাম। সেখানে অমিত হাসান যেটা করেছে সেটা নিজেদের সন্মান রক্ষা করতে করেছে। কিন্তু নাসরিনের উচিত হয়নি এমন ভাষায় কথা বলা।

এদিকে বিষয়টি নিয়ে শিল্পী সমিতির কোষাধাক্ষ্য অভিনেতা কমল বলেন, আমরা সেখানে ছিলাম, আসলে বেশ কিছু অনলাইন যে ধরণের খবর প্রকাশ হয়েছে এখানে তেমন কিছুই হয়নি। নাসরিনের ভুল ছিলো। আর শিল্পীদের অপমান করে কখা বলার সে কে। এবং মান্না ভাই সাধারণ সম্পাদক থাকা অবস্থায় এমন বেয়াদবি করার কারণে তাকে বহিস্কার করা হয়েছিলো।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেক অভিনেতা- অভিনেত্রী বলেন, নাসরিন যেটা করেছে সেটা অন্যায় করেছে। ওখানে বাইরের কেউ ছিলোনা। নাসরিনের উচিত ছিলো বিষয়টি নিয়ে ঘরোয়া আলোচনা করা। হাজার দর্শকের মাঝে মাইক নিয়ে বলা ঠিক হয়নি।

আরো জানাযায়, এর আগেও নাসরিন এই ধরনের বেয়াদবি করেছে। এমনকি এই বেয়াদবির কারণে শিল্পী সিমিতি থেকে বিগত সময় তাকে বহিস্কার করা হয়েছিলো। এছাড়াও আরো নানা বিষয় উঠে আসে।

ভিডিওটি দেখতে এখানে ক্লিক করুন






মন্তব্য চালু নেই