মেইন ম্যেনু

অযৌক্তিক উত্তেজনা কমাবেন যেভাবে

কিছু্ দুঘর্টনা বা পরিস্থিতি আমাদের দুর্বল চিত্তকে আঘাত করে। এতে আমারা নার্ভাসনেস বা উদ্বেগ প্রকাশ করি। এটাই মানুষের স্বাভাবিক আচরণ। এ রকম আচরণকে অনেকে সমস্যা বা কোনো রোগ বলে চিহ্নিত করেন। অযৌক্তিক উদ্বেগ বা উত্তেজনা তখনই সমস্যা, যখন তার ওপর আমাদের নিয়ন্ত্রণ থাকে না বা আমরা নিয়ন্ত্রণ করতে পারি না।

তবে গবেষকদের মতে কিছু কিছু সময় উত্তেজনা, ভয় বা উদ্বিগ্ন হওয়া অযৌক্তিক নয়। শুধু তাই নয়, যদি আপনি কোনও কারণে নার্ভাসনেস বা আকস্মিক আক্রমণে উত্তেজিত ও উদ্বিগ্ন হন তাহলে সেখানে বিভিন্ন ওষুধ ও পেশাগত সাহায্য আপনার ব্যাধিকে হ্যান্ডেল করতে পারবে। তবে এতো চিন্তা না করে নিয়ম মেনে কিছু কাজ করলেই আপনি সাধারণভাবে এ থেকে পরিত্রাণ পেতে পারেন।

তাহলে আসুন জেনে নেই কি সেই সাধারণ নিয়ম, যা মানলে আমাদের সব রাগ, উদ্বেগ, উত্তেজনা দূর হয়ে যাবে?

* প্রতিদিনের কাজই অতিরিক্ত নার্ভাসনেস ও উদ্বিগ্ন থেকে আপনাকে মুক্তি দিতে পারে। কোনও বিষয়ে চিন্তা না করে আপনি কাজের মধ্যে ডুবে যান। ব্যস্ত থাকলে আপনার মাথায় কোনো উল্টো-পাল্টা চিন্তা আসবে না, উত্তেজনাও কমে যাবে।

* নিয়মিত কার্যক্রম বা ব্যায়াম আপনার রাগ ও উত্তেজনা কমাতে সাহায্য করবে। দৈনিক ২০ মিনিটের ব্যায়াম আপনার নার্ভাসনেস দূর করে আয়েশীভাব এবং ভাল অনুভূতি দিতে পারে।

* হাঁটা, যোগব্যায়াম এবং চি-ব্যায়াম নিমিষেই আপনার সব দুশ্চিন্তা দূর করে দেবে। এরকম প্রাকৃতিক চিকিৎসা আপনাকে যে কোনও আশংকা থেকে মুক্ত রাখবে। মেজাজ থাকবে ফুরফুরে।

* আপনার খাদ্য তালিকাও নার্ভাসনেস কমাতে আরেকটি প্রাকৃতিক চিকিত্সা হতে পারে। আপনার প্রতিদিনের খাদ্যের তালিকায় মাছ রাখতে পারেন। কারণ সামুদ্রিক মাছের তেলে ওমেগা-৩ পাওয়া যায়। কারণ ওমেগা-৩ ফ্যাটি এ্যাসিডসমৃদ্ধ। যা আপনার অযৈক্তিক চিন্তা কমাতে সাহায্য করবে।

* উত্তেজনা বা অতিরিক্ত চাপ কমাতে সবুজ শাকসবজি খেতে পারেন। কারণ শাকসবজিতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন- বি থাকে। এছাড়া আপনি চিকিৎসকের পরামর্শও নিতে পারেন।

* ক্যামোমিল চা, লেবুর সুগন্ধ চা এবং সবুজ চা পান করতে পারেন। চা আমাদের স্নায়ু প্রশমিত করে এবং মস্তিষ্কের উপর ক্রিয়া করে নার্ভাসনেস বা উদ্বেগ কমিয়ে শান্ত করে।

* ল্যাভেন্ডার সুগন্ধের মোমবাতিও আপনার বাড়তি উদ্বেগ ও উত্তেজনা কমাতে পারে। এছাড়া হঠাৎ উদ্বিগ্ন হলে ল্যাভেন্ডার তেল মাথায় দিয়ে একলা ঘরে বা বারান্দা চলে যান, সব চিন্তা ঝেড়ে ফেলে একটা ল্যাভেন্ডার সুগন্ধের মোমবাতি জ্বালান। দেখবেন এ সুগন্ধের আকর্ষণে আপনার সব চিন্তার দূর হয়ে যাবে। কারণ ল্যাভেন্ডার তেল স্নায়ুকে শান্ত করে তা অনেকের কাছে প্রমাণিত।

এটা স্পষ্ট যে নার্ভাসনেস, উদ্বেগ, উত্তেজনা বা ভয় ব্যাধি ওষুধ ছাড়াই প্রাকৃতিক চিকিৎসায় আপনি উপকার পেতে পারেন। চিকিৎসকের পরামর্শ নিলেও আপনি এ নিয়ম অনুসরণ করতে পারেন। তবে সবার আগে বেশি গুরুত্বপূর্ণ নিজের ওপর নিয়ন্ত্রণ রাখা।






মন্তব্য চালু নেই