মেইন ম্যেনু

অসামাজিক কাজের আখড়া হিসেবে পরিচিত লরেল ইন থেকে ৯ তরুণ-তরুণীকে আটক

বহুল আলোচিত লরেল ইন থেকে ৯ তরুণ-তরুণী আটক। বুধবার দুপুরে হালিশহর আবাসিক এলাকার বহুল আলোচিত সেই গেস্টহাউস অভিযান চালিয়েছে পুলিশ। এ সময় হালিশহর থানা পুলিশ অসামাজিক কাজের আখড়া হিসেবে পরিচিত লরেল ইন থেকে ৯ তরুণ-তরুণীকে আটক করেছে।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, হালিশহর হাউজিং হোসাইটির কে ব্লক এলাকার ২ নম্বর রোড়ের ৫ নম্বর লেইনের ৪ নম্বর বাড়ির মালিক লেয়াকত আলী খান। ৮ থেকে ১০ বছর আগে লরেল ইন নামে গেস্টহাউসটি গড়ে তোলেন। পাঁচতলা বিশিষ্ট এই গেস্টহাউজে দীর্ঘদিন ধরে অসামাজিক কার্যক্রম চলছে।

হালিশহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দ মোহাম্মদ আহসানুল ইসলাম বলেন, এলাকার সমাজ কল্যাণ সমিতির অভিযোগের ভিত্তিতে আমরা ওই গেস্টহাউসে অভিযান পরিচালনা করি। সেখান থেকে নয় জনকে আটক করা হয়েছে। এর মধ্যে চারজন মহিলা ও পাঁচজন পুরুষ। স্থানীয়দের অভিযোগ, পুলিশকে ম্যানেজ করে ওই গেস্টহাউসে মাদকসহ বিভিন্ন অপরাধ কার্যক্রম চলতো।

গেস্টহাউস বন্ধের জন্য এলাকাবাসী প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরে দাবি জানিয়ে আসছিল। এরপরও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি। আবাসিক এলাকায় গেস্টহাউসের কারণে স্কুল, কলেজ পড়ূয়া শিক্ষার্থীসহ বাসিন্দাদের বিভিন্ন সমস্যায় পড়তে হতো।

হালিশহর কে, এল ব্লক সমাজ কল্যাণ সমিতির সাধারণ সম্পাদক গোলাম মোস্তফা বলেন, এই গেস্টহাউসে অসামাজিক কার্যকলাপের কারণে এলাকার পরিবেশ নষ্ট হয়ে গেছে। সমিতির পক্ষ থেকে পুলিশের শীর্ষ পর্যায়ে সহায়তা চেয়েছিলাম।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই