মেইন ম্যেনু

আইআরএফ নিষিদ্ধ করার প্রতিবাদে যা বললেন জাকির নায়েক

ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশনের (আইআরএফ) নিষিদ্ধ করাকে ‘ন্যায়বিচার, শান্তি, গণতন্ত্র ও মুসলিমদের ওপর হামলা’ বলে উল্লেখ করে ভারত সরকারের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে লড়াই চালিয়ে যাওয়ার অঙ্গীকার করেছেন পিস টিভির প্রতিষ্ঠাতা জাকির নায়েক।

শুক্রবার অজ্ঞাত স্থান থেকে দেওয়া তিন পাতার একটি খোলা চিঠিতে জাকির নায়েক এসব কথা বলেন। ওই খোলা চিঠিতে তিনি বলেন, আইআরএফ নিষিদ্ধের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ প্রতিহত করতে এবং গণমাধ্যমের মনোযোগ অন্য দিকে সরাতে ভারত সরকারের নোট কেলেঙ্কারির সময়টাতেই আইআরএফ নিষিদ্ধ করা হয়েছে।

তিনি অভিযোগ করেন, আইআরএফ নিষিদ্ধের সিদ্ধান্ত অনেক আগেই নেওয়া হয়েছে। এমনকি তদন্ত প্রতিবেদন পাওয়ার আগেই এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

আলোচিত-সমালোচিত ইসলামী বক্তা জাকির নায়েকের এনজিও ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশনকে (আইআরএফ) ৫ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে ভারত সরকার। ১৫ নভেম্বর ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভা এ নিষেধাজ্ঞায় অনুমোদন দিয়েছে।

নিষেধাজ্ঞা প্রতিবেদনে বলা হয়, ‘অবৈধ সংস্থা’ হিসেবে জাকির নায়েকের এনজিও আইআরএফকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। দেশটির অবৈধ কার্যাবলী প্রতিরোধ আইনের (ইউএপিএ) অধীনে এ নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

ইউএপিএ’র তালিকভুক্ত সন্ত্রাসবাদী সংস্থাসমূহ এবং ‘অবৈধ সংস্থা’র মধ্যে পার্থক্য রয়েছে। সেই হিসেবে জাকির নায়েকের এনজিও সন্ত্রাসবাদী সংস্থার তালিকায় পড়ছে না।

প্রসঙ্গত, ইসলামী বক্তা জাকির নায়েক সারা বিশ্বে মুসলমানদের কাছে ব্যাপক জনপ্রিয়। তবে সম্প্রতি জঙ্গিবাদ বা সন্ত্রাসবাদের সঙ্গে সংশ্লিষ্টতার অভিযোগে ভারতে বেশ চাপের মুখে পড়েছেন তিনি।






মন্তব্য চালু নেই