মেইন ম্যেনু

আইবুড়ো ভাত খাওয়াতে হয় কেন?

বিয়ের আগের দিন দুপুরে, অবিবাহিত অবস্থায় শেষবার ভাত খাওয়ার নামই আইবুড়ো ভাত৷ পাত্র-পাত্রীর বন্ধু বান্ধবী যাদের বিয়ে হয়নি তাদেরও সেক্ষেত্রে একসঙ্গে খেতে বসতে দেখা যায়৷ এই লোকাচারের পিছনে যে যুক্তি রয়েছে সেটা হল সে যুগে সম্ভবত বিয়ের পর ছেলেরা সাবলম্বী হয়ে পৃথক ভাবে বাস করত অর্থাৎ কোনও যৌথ পরিবারে তারা বাস করত না৷ এই বায়ের মাধ্যমেই এক পৃথক সংসার গঠনের নির্দেশ থাকত৷ অন্যদিকে মেয়েদেরকে স্বাভাবিক ভাবেই বিয়ের পর বাপের বাড়ি ছেড়ে দিয়ে স্বামীর বাড়িতে গিয়ে থাকতে হত৷ এর অর্থ হল পাত্র-পাত্রী উভয়ই বিয়ের পর বাবা-মা আত্মীয় স্বজনকে ছেড়ে দিয়ে অন্যত্র বাস করতে চলে যায় ফলে একদিক থেকে যেন বিয়ের পর পাত্র পাত্রী তার পরিবারের সাপেক্ষে পর হয়ে যায়৷ এই পর হয়ে যাওয়ার আগে আত্মীয় স্বজনেরা সাধ করে ভাল ভাল খাবার খাওয়াতো যেন বিদায়ের বেদনা মুছিয়ে দিতে ৷ ফলে এই প্রথাটির পিছনে রয়ে গিয়েছে একটি বিয়োগের সুর ৷ তাই বলা চলে বিয়ে পুরোপুরি আনন্দের নয় এই অনুষ্ঠান ঘিরে এমন প্রথাটিও লুকিয়ে রয়েছে যেখানে রয়েছে শোকের ছায়াও৷






মন্তব্য চালু নেই