মেইন ম্যেনু

“আওয়ামী লীগ কখনই জামায়াতকে নিষিদ্ধ করবে না”

আওয়ামী লীগ কখনই জামায়াতকে নিষিদ্ধ করবে না। ইন্ডিপেন্ডেন্টে টেলিভিশনের ‘আজকের বাংলাদেশ’ অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন সিনিয়র সাংবাদিক মাহফুজউল্লাহ। তিনি বলেন, বিএনপি যদি বলে, আমরা জামায়াতের সঙ্গ ছেড়ে দিব কিন্তু বর্তমান সরকারকে নিশ্চয়তা দিতে হবে যে, তারা জামায়াতের সঙ্গে সংবদ্ধ হবে না। কারণ, হেফাজতের শুরু দিকে আওয়ামীলীগের ভূমিকা এবং বর্তমানের ভূমিকার অনেক পার্থাক্য আমরা দেখতে পাচ্ছি।

মাহফুজউল্লাহ বলেন, জামায়াতকে বর্তমান সরকার পলিটিক্যাল স্ট্যান্ড হিসেবে ব্যবহার করছে। যারফলে জামায়াত বিএনপির এই প্রচারণাটাও অব্যহত রাখছে। এছাড়া, জামায়াতকে নিষিদ্ধ করার সাথে সাথে আরও অনেকগুলে রাজনৈতিক দলকে নিষিদ্ধ করতে হবে। কারণ, ঐ সমস্ত নিবন্ধিত দলের বিরুদ্ধেও জামায়াতের মত একই রকমের অভিযোগ রয়েছে।

মাহফুজউল্লাহ বলেন, একটি গণতান্ত্রিক দেশে একটি অনুমোদিত রাজনৈতিক দল সকল রাজনীতিতে অংশগ্রহণ করতে পারবে। আর ঐ সকল দলকে যদি মারপিট করে বা গ্রেফতার করে বাঁধা দেওয়া হয় তাহলে এটাকে অগণতান্ত্রিক আচরণ হিসেবে বিবেচিত করতে হবে। কারণ, একটি অনুমোদিত রাজনৈতিক দলকে পিটিয়ে হেনস্তা করলে বুঝে নিতে হবে গণতন্ত্র মানা হচ্ছে না।

সন্ত্রাসী কর্মকাকাণ্ড হিসেবে জামায়াতকে নিষিদ্ধ করা যায় কী না? উপস্থাপকের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, নিষিদ্ধ করতে হলে আগে সন্ত্রাসী কর্মকা-ের প্রমাণ দেখাতে হবে। প্রমাণ বলতে কাগজে কলমের প্রমাণ, কারণ আমরা জানি যে, মুখের কথা আর কাগজে কলমের কথার গ্রহণযোগ্যতা অনেক পার্থাক্য। সেক্ষেত্রে জামায়াতকে নিষিদ্ধ করতে হলে অবশ্যই কাগজের প্রমাণ দেখাতে হবে বলে আমি মনে করি।

তিনি বলেন, যদিও অনেক রাজনৈতিক নেতাদের মুখে জামায়াত একটি সন্ত্রাসী দল, সন্ত্রাসী কর্মকা- করে ইত্যাদি বলা হয়েছে। কিন্তু আমার কথা হলো তাদের ঐ মুখের কথার কোনো বিহিত দেখতে পাচ্ছি না কেনো? কারণ, আওয়ামীলীগ জামায়াতকে এবং জামায়াত বিএনপির এই প্রচারণাটা রাজনৈতিক ভাবে ব্যবহার করছে।






মন্তব্য চালু নেই