মেইন ম্যেনু

আঙুলের ছাপে সিম নিবন্ধনে ভোগান্তি

বায়োমেট্রিক বা আঙুলের ছাপ পদ্ধতি সিম/রিম নিবন্ধন করতে দিয়ে গ্রাহকরা মোবাইল ফোন অপারেটরদের কাছ থেকে ভোগান্তির শিকার হচ্ছেন বলে জানিয়েছেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ প্রতিমন্ত্রী তারানা হালিম। তার কাছে গ্রাহকরা ভোগান্তির বিষয়টি তুলেও ধরেছেন। তিনি আজ তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে একটি স্ট্যাটাসের মাধ্যমে এসব কথা জানান।

তারানা হালিম ফেসবুক স্ট্যাটাসে লিখেছেন, ‘আমার ভেরিফাইড ফেসবুক পেইজে বায়োমেট্রিক্স (আঙুলের ছাপ) পদ্ধতিতে সিম/রিম নিবন্ধন বিষয়ে কিছু মোবাইল ফোন অপারেটর কর্তৃক গাফিলতির কিছু অভিযোগ করেছেন সম্মানিত গ্রাহকেরা। আমরা ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগ একজন গ্রাহকের অভিযোগকেও শতভাগ গুরুত্ব দিতে চাই। তাই বায়োমেট্রিক্স পদ্ধতিতে পুরাতন এবং নতুন সকল প্রকার সিম/রিম নিবন্ধনের বিষয়ে কোন সুনির্দিষ্ট অভিযোগ (যেমনঃ কোন Service Center, কোন অপারেটর, কোন স্থানের Retailer) থাকলে আপনাদের অভিযোগ এবং অভিজ্ঞতা এখানে লিখুন। সকল মোবাইল ফোনের CEO দের সামনে তা তুলে ধরবো। জনগণের প্রতি আমাদের সকলের জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার লক্ষ্যেই এই মন্তব্য আহ্বান করছি।’

উল্লেখ্য, গত বছরের ১৬ ডিসেম্বর বায়োমেটিক পদ্ধতিতে সিম/রিম নিবন্ধদের উদ্বোধন করা হয়। বিটিআরসির জারি করা নির্দেশনায় বলা হয়েছে, শুধু সংশ্লিষ্ট মোবাইল অপারেটরের নির্দিষ্ট কাস্টমার কেয়ারে জাতীয় পরিচয়পত্র ছাড়া ড্রাইভিং লাইসেন্স, জন্ম সনদ, পাসপোর্টের মতো অনুমোদিত পরিচয়পত্র দিয়ে সিম নিবন্ধন করা যাবে। অনুমোদিত পরিবেশক ও খুচরা বিক্রেতার মাধ্যমে সিম নিবন্ধনের ক্ষেত্রে জাতীয় পরিচয়পত্র ব্যবহার করতে হবে।

তারানা হালিমের ফেসবুক পেজের মাধ্যমে অভিযোগ জানানো যাবে এই লিংকে: https://www.facebook.com/TaranaHalimMP/






মন্তব্য চালু নেই