মেইন ম্যেনু

আজব রেস্তোরাঁয় পুলিশ ওয়েটার-কয়েদি কাস্টমার!

পানির নিচে রেস্তোরাঁর কথা সবারই জানা রয়েছে! কিছুদিন আগে ভারতেও তৈরি হয়েছেল এমন একটি রেস্তোরাঁর। আবার লবন, বরফ ঘেরা রেস্তোরাঁর কথাও শোনা গিয়েছে৷ দুনিয়াভর আজব অনেক রেস্তোরাঁই গড়ে উঠেছে৷ কিন্তু, এবার ভারতের পাওয়া গেল এক আজব রেস্তোরাঁর সন্ধান! যেখানে পুলিশ নেয় খাবারের অর্ডার৷ আর রেস্তোরাঁর যারা খাবার খেতে আসেন তারা সবাই কয়েদি! চেন্নাইয়ের এই কয়েদি কিচেনের নাম ধীরে ধীরে ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বজুড়েই! এরই মধ্যে বেশ নামডাকও ছড়িয়ে পড়েছে এই কয়েদি কিচেনের৷

ভারতের চেন্নাই শহরের মায়লাপোরের এই কয়েদি কিচেনে খাঁকি উর্দি পরা ওয়েটাররা সবাই পুলিশ কর্মীদের মতোই দেখতে লাগে৷ এরা পুলিশের পোশাক পরে খাবারের অর্ডার নেন৷ ডিনার-লাঞ্চের টেবিল পরিস্কার করে কয়েদি কাস্টমারদের কাছ থেকে টিপসও নেন৷ শুধু তাই নয়, এই রেস্টুরেন্টে টেবিল-চেয়ার এবং কেবিন এমনভাবে সাজানো, এক ঝলক দেখলে মনে হবে, ভুল করে কোন জেলখানায় ঢুকে পড়েছেন৷ শুধু জেলখানার মতো পরিবেশ সৃষ্টি করায় নয়, এখানকার খাবারের ডিশেও রয়েছে নানা বৈচিত্র৷

সবাই জানেন জেলখানায় নিষিদ্ধ কোমল পানিয় পান নিষিদ্ধ! সেই সুত্র ধরেই চেন্নাইয়ের কয়েদি কিচেন
রেস্টুরেন্টে এসব পান এক্কেবারে নিষিদ্ধ৷ কোনো আমিষ চলে না৷ পুরোপুরি নিরামিষ খানায় এখানে পাওয়া যায়৷ কয়েদি কিচেনের ম্যানেজার রোহিত ওঝা জানালেন, এই কয়েদি কিচেন করা একটা উদ্দেশ্য আছে৷ সমাজ থেকে অপরাধ দমন এবং সাধারণ মানুষকে আইন সম্পর্কে সচেতন করতেই এই থিমের রেস্টুরেন্ট তারা করেছেন৷



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই