মেইন ম্যেনু

আজ থেকেই ‘বেশি টাকা’ কাটছে মোবাইল ফোন অপারেটররা

২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেটে মোবাইলফোন সিমভিত্তিক সেবার ওপর সম্পূরক শুল্ক বৃদ্ধির প্রস্তাব করার একদিন পরেই গ্রাহকদের কাছ থেকে সেই হারে টাকা আদায় শুরু করে দিয়েছে বেসরকারি অপারেটররা। শুক্রবার সকাল থেকে মোবাইল ফোন গ্রাহকদের এসএমএস পাঠিয়ে অপারেটররা এই নতুন ট্যারিফ প্ল্যানের আওতায় আসার বিষয়টি জানিয়ে দিচ্ছে।

মোবাইল ফোন অপারেটররা জানিয়েছে, জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের এসআরও হাতে পাওয়ার পরপরই নতুন ট্যারিফ প্ল্যানের সিস্টেম আপগ্রেড শুরু করা হয়েছে। তারা জানান, বৃহস্পতিবার বাজেটে সম্পূরক শুল্কের ঘোষণার পরপরই এনবিআর এ বিষয়ে এসআরও জারি করেছে।

অপারেটর রবি গ্রাহকদের এসএমএস করে বলছে, ‘মোবাইল সেবার উপর আগের আরোপিত তিন শতাংশ সম্পূরক শুল্ক বৃদ্ধি করে পাঁচ শতাংশ করা হয়েছে, যা আপনার ট্যারিফে প্রতিফলিত হয়েছে। রবির সাথে থাকার জন্য ধন্যবাদ।’

রবির একজন কর্মকর্তা বলেন, কোনো গ্রাহক এসএমএস পাওয়া মানেই হচ্ছে তিনি নতুন ট্যারিফ প্ল্যানে অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন। শুক্রবার সকাল থেকে এই এসএমএস দেওয়া শুরু হয়েছে।

গ্রামীণফোনের চিফ করপোরেট অ্যাফেয়ার্স অফিসার মাহমুদ হোসেন বলেন, বাজেটে ঘোষণা আসার পর তারাও গ্রাহকদের নতুন ট্রারিফ প্ল্যানে অন্তর্ভুক্ত করা শুরু করেছেন।

রবির কমিউনিকেশনস ও করপোরেট রেসপনসিবিলিটি বিভাগের ভাইস প্রেসিডেন্ট ইকরাম কবির বলেন, তারা এই কাজ শুরু করেছেন বৃহস্পতিবার মধ্যরাত থেকেই।

বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে উপস্থাপিত ২০১৬-১৭ অর্থবছরের বাজেটে শুল্কহার পুনর্বিন্যাসের প্রস্তাব করেন অর্থমন্ত্রী।

গত বাজেটে মোবাইল সিম ট্যাক্স ‘ব্যাপক হারে’ কমানোর বিষয়টি তুলে ধরে তিনি বলেন, ‘মোবাইল সিম বা রিম কার্ডের মাধ্যমে প্রদত্ত সেবার উপর বিদ্যমান তিন শতাংশ সম্পূরক শুল্ক বৃদ্ধি করে পাঁচ শতাংশ নির্ধারণের প্রস্তাব করছি।’

গত বাজেটে নতুন মোবাইল সিমের শুল্ক হার ৩০০ টাকা থেকে কমিয়ে ১০০ টাকা করা হয়েছিল।

মোবাইল সেবার উপর কর বাড়ানোর প্রস্তাবকে তথ্য প্রযুক্তি ব্যবহার ও এ খাতে সার্বিক অগ্রযাত্রার অন্তরায় হিসেবে দেখছে মোবাইল ফোন অপারেটররা।

বাংলাদেশে বর্তমানে সর্বোচ্চ কলরেট প্রতি মিনিট ২ টাকা। এর সঙ্গে ৩ শতাংশ সম্পূরক, ১৫ শতাংশ ভ্যাট এবং এক শতাংশ সারচার্জ দিতে হতো গ্রাহককে। ওই এক মিনিটের জন্য খরচ হতো ২ টাকা ৩৯ পয়সা। সম্পূরক শুল্ক বাড়িয়ে ৫ শতাংশ করায় এখন তার খরচ বেড়ে হবে ২ টাকা ৪৪ পয়সা।

একটি অপারেটরের একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা বলেন, সম্পূরক শুল্ক বাড়ায় মোবাইল ফোননির্ভর (কথা বলা, মেসেজ পাঠানো কিংবা ডেটা ব্যবহার) সব সেবারই খরচ বাড়বে।

বায়োমেট্রিক সিম নিবন্ধনের সর্বশেষ পরিসংখ্যান অনুযায়ী, বাংলাদেশের ছয়টি অপারেটরের ১০ কোটি ৮১ লাখের বেশি মোবাইল ফোন বর্তমানে সচল রয়েছে।

নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসির হিসাবে, এপ্রিলের শেষ নাগাদ দেশে মোবাইল ইন্টারনেট ব্যবহারকারীর সংখ্যা ছিল ৫ কোটি ৮৬ লাখের বেশি।






মন্তব্য চালু নেই