মেইন ম্যেনু

আপনার অজান্তেই যাবতীয় ব্যক্তিগত গোপন তথ্য চলে যাচ্ছে অন্যের হাতে!

স্মার্টফোনে ইনস্টল হচ্ছে নিত্যনতুন অ্যাপ। চোখ বন্ধ করে অ্যাকসেপ্ট বাটনে চাপ। কিন্তু একবারও ভেবে দেখেছেন, না বুঝেই কী শর্ত মানছেন আপনি? নিজের অজান্তেই আপনার যাবতীয় ব্যক্তিগত তথ্য হয়ে যাচ্ছে হাতবদল। খবর জিনিউজের।

সময় এগোচ্ছে। এগোচ্ছি আমরাও। সময়ের দাবি মেনে প্রতিদিনের জীবনে ঢুকে পড়েছে স্মার্টফোন। জেট গতির যুগে দিন-প্রতিদিনের চাহিদা মেটাতে সেই ফোনে ইনস্টল হচ্ছে বিভিন্ন অ্যাপ। তা সে সাংসারিক জীবনের খুঁটিনাটিই

হোক বা দৈনন্দিন যাবতীয় বিষয়। এক কথায় জুতো সেলাই থেকে চণ্ডিপাঠ। বিভিন্ন অ্যাপের মাধ্যমে সবই এখন হাতের মুঠোয়। কিন্তু এই অ্যাপ ইনস্টল করতে গিয়ে আমরা নিজেদের ব্যক্তিগত যাবতীয় তথ্য দিয়ে দিচ্ছি অ্যাপকে..

কীভাবে যাচ্ছে তথ্য?

(আমি একটা অ্যাপ ইনস্টল করছি…প্রথমে প্লে স্টোর…সেখানে একটা পরিচিত স্মার্ট ক্যাব)

অ্যাপ ইনস্টল হওয়ার সময় কিছু শর্ত দিচ্ছে।

(পরিচিতি)….

(লোকেশন)….

(এসএমএস)…এসএমএস, এমএমএস

(ফোন)…কল লগ

(গ্যালারি…ছবি, ভিডিও, অডিও)

(যেমন…এসএমএস, ফোন)

অনেক ক্ষেত্রেই আমরা চোখ বন্ধ করে শর্তগুলি না দেখেই অথবা বাধ্য হয়ে অ্যাপ ইনস্টল করি। আর এতেই বাড়ছে বিপদ। সেইসমস্ত তথ্যকে ব্যবহার করেই সাম্প্রতিক অতীতে বেশকিছু সাইবার ক্রাইমের ঘটনা ঘটেছে। তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞরা বলছেন, এধরনের বিষয় আটকাতে তেমন প্রাইভেসি আইন এখনও তৈরি হয়নি। দু দুবার সংসদে গিয়েও পাস হয়নি প্রাইভেসি বিল। অতএব, সচেতন হতে হবে নিজেকেই।






মন্তব্য চালু নেই