মেইন ম্যেনু

আপাতত ভারতে ফিরছেন না জাকির নায়েক

আপাতত ভারতে ফিরছেন না ওমরাহ পালনের কারণে সৌদি আরবে অবস্থানরত বিতর্কিত ইসলামি চিন্তাবিদ জাকির নায়েক। সোমবার তার ভারতে ফেরার কথা ছিল। তবে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম হিন্দুস্থান টাইমস তার ফিরতি টিকিট বাতিলের খবরটি নিশ্চিত করেছে। ভিডিও করফারেন্সের মাধ্যমে তিনি নিজের অবস্থান ব্যাখ্যা করতে পারেন বলে পুলিশ সূত্রের বরাত দিয়ে নিশ্চিত করেছে হিন্দুস্থান টাইমস।

উল্লেখ্য, গুলশান হামলাকারীদের মধ্যে অন্তত দুইজন জাকির নায়েককে অনুসরণ করত বলে অভিযোগ ওঠার পর এ নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়। নিহত জঙ্গিদের দুজন-রোহান ইমতিয়াজ এবং নিবরাস ইসলাম জাকির নায়েককে অনুসরণ করত বলে অভিযোগ রয়েছে। রোহান গত বছর জাকির নায়েকের পিস টিভির একটি অনুষ্ঠান তার ফেসবুক পেজে পোস্ট করেছিল।

এছাড়া ভারতে বিভিন্ন সময়ে আটক হওয়া জঙ্গিরাও জাকির নায়েককে অনুসরণ করতেন বলে অভিযোগ পাওয়া যায়। পাটনার গান্ধী ময়দান ও বুদ্ধগয়া বিস্ফোরণে আটক জঙ্গিদের কাছ থেকেও জাকিরের বক্তৃতার সিডি ও বই উদ্ধারের দাবি করে জাতীয় তদন্তকারী সংস্থা (এনআইএ)। এমন প্রেক্ষাপটে ভারতে জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে তদন্ত শুরুর দাবি ওঠে। জাকিরের বিভিন্ন বয়ানের অডিও-ভিডিও ক্লিপিংস এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তার গতিবিধি খতিয়ে দেখতে ভারত সরকার ৯টি তদন্ত দল গঠন করে। অন্যদিকে বাংলাদেশেও তার পিস টিভির ডাউন লিংকের অনুমতি বাতিল করেছে সরকার। আইন-শৃঙ্খলা সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি রবিবার বাংলাদেশে পিস টিভির অন এয়ার বন্ধের সিদ্ধান্ত দেওয়ার পরসোমবার তথ্য মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপণ জারি করে।

পুলিশ সূত্রের বরাত দিয়ে হিন্দুস্থান টাইমস-এর খবরে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ ও ভারতের নেওয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের মুখে ভারতে ফেরার টিকিট বাতিল করেছেন তিনি। পুলিশ সূত্রের বরাত দিয়ে সংবাদমাধ্যমটি বলছে, সম্ভবত সৌদি আরব থেকেই একটি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে নিজের অবস্থান ব্যাখ্যা করবেন তিনি।

ভারতের বিতর্কিত ধর্মীয় নেতা জাকির নায়েক দাবি করেছেন, তার বিরুদ্ধে জঙ্গিবাদে উসকানি দেওয়ার যে অভিযোগ উঠেছে তা বাংলাদেশ সরকার বিশ্বাস করেন না। কোনও সন্ত্রাসী যদি তার ভক্ত হয়, তবে সেটি সেই সন্ত্রাসীর ব্যক্তিগত বিষয় বলেও উল্লেখ করেছেন জাকির। শনিবার মুম্বাইয়ে প্রচারিত এক ভিডিওতে জাকির নায়েক এ দাবি করেন বলে জানিয়েছে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস। তবে ভিডিওটির উৎস সম্পর্কে কিছু জানা যায়নি। গুগল সার্চ করে সেই ভিডিওর কোন অনুলিপিও পাওয়া যায়নি।

এর আগে অবশ্য ৮ তারিখে নিজের ফেসবুকে পোস্ট করা ভিডিওতে জাকির জঙ্গিবাদ ও গুলশানের ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগ প্রসঙ্গে একইরকম দাবি করেছিলেন। তবে সেই ভিডিওতে বাংলাদেশ সরকারের কোনও প্রতিনিধির সঙ্গে যোগাযোগ হয়েছে বলে জানাননি জাকির নায়েক।






মন্তব্য চালু নেই