মেইন ম্যেনু

আপিলে মির্জা আব্বাসের জামিন বহাল

প্লট দুর্নীতির মামলায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাসকে হাই কোর্টের দেয়া জামিন বহাল রেখেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

বৃহস্পতিবার (৩১ মার্চ) প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহার নেতৃত্বাধীন আপিল বিভাগের চার বিচারপতির বেঞ্চ হাই কোর্টের দেয়া জামিন স্থগিত চেয়ে দুদকের করা লিভ টু আপিলের আবেদন খারিজ করে দেন।

আপিলের আদেশের পর এ মামলায় জামিন পাওয়ায় তার মুক্তিতে আর কোনো বাধা নেই বলে জানিয়েছেন তার আইনজীবী সগীর হোসেন লিওন।

গত ৯ মার্চ বিচারপতি মো. রুহুল কুদ্দুস ও বিচারপতি মাহমুদুল হকের ডিভিশন বেঞ্চ এ মামলায় মির্জা আব্বাসকে স্থায়ী জামিন দেন।

পরে জামিন স্থগিত চেয়ে দুদক আবেদনে গত ১০ মার্চ চেম্বার বিচারপতি মির্জা হোসেইন হায়দার আবেদনটি ১৪ মার্চ শুনানির জন্য আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে পাঠিয়ে দেন। নির্ধারিত দিনে আপিল বিভাগ এ বিষয়ে শুনানি করে প্রধান বিচারপতি এস কে সিনহার নেতৃত্বাধীন পাঁচ বিচারপতির আপিল বেঞ্চ আব্বাসের জামিন স্থগিতের মেয়াদ এক সপ্তাহ বৃদ্ধি করেন। পরে এ স্থগিতাদেশের মেয়াদ আরও দুই দফায় বাড়ানো হয়।

২০০৬ সালে গণপূর্তমন্ত্রী থাকাকালে প্যাসিফিক কেমিক্যালস নামের একটি প্রতিষ্ঠানকে তেজগাঁও শিল্প এলাকায় ১৯.৪৪ কাঠা জমি বরাদ্দ দেন মির্জা আব্বাস। পরে এ বিষয়ে আপত্তি জানায় দুদক।

দুদক থেকে বলা হয়, বিএনপির সাবেক এমপি আলী আসগর লবীসহ মাহফুজুল ইসলাম নামের এক সরকারি কর্মকর্তার যোগসাজশে অনিয়মের মাধ্যমে এ প্লট বরাদ্দ দেয়া হয়। এ অভিযোগে দুদকের তৎকালীন উপ পরিচালক সৈয়দ ইকবাল হোসেন শাহবাগ থানায় ২০০৭ সালের ১৫ জুলাই একটি মামলা করেন। পরের বছর ১১ ফেব্রুয়ারি আসামিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়। একই বছরের জুলাইয়ে মামলা বাতিলে হাই কোর্টে আবেদন করেন মির্জা আব্বাস।






মন্তব্য চালু নেই