মেইন ম্যেনু

আফ্রিকার নেতাদের সঙ্গে মিলিত হচ্ছেন মোদি

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি আফ্রিকার ২০ নেতার সঙ্গে বুধবার দ্বিপাক্ষিক আলোচনায় বসবেন। ওই আলোচনায় জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবে, দক্ষিণ সুদানের প্রেসিডেন্ট সালভা কির মায়ারদিত, নাইজেরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুহাম্মাদু বুহারী এবং দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্ট জ্যাকোব জুমা ছাড়াও আফ্রিকার বিভিন্ন দেশের প্রধান এবং রাষ্ট্রীয় নেতারা থাকছেন বলে জানিয়েছে এনডিটিভি।

পররাষ্ট্রমন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বিকাশ সরূপ জানিয়েছেন, বুধবার ইন্ডিয়া-আফ্রিকা ফোরাম সামিটের (আইএএস) তৃতীয় দ্বিপাক্ষিক বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী আফ্রিকার নেতাদের সঙ্গে মিলিত হবেন। এ বৈঠক শুরু হয়েছে ২৬ অক্টোবর। শেষ হবে ৩০ অক্টোবর।

মোদি স্থানীয় সময় সকাল ৯টায় জিম্বাবুয়ের প্রেসিডেন্ট রবার্ট মুগাবের সঙ্গে প্রথম সাক্ষাৎ করবেন। হায়দ্রাবাদে অনুষ্ঠিত রাষ্ট্রপ্রধানদের এই বৈঠক স্থানীয় সময় বিকাল ৫টা পর্যন্ত চলবে।

ঘানার প্রেসিডেন্ট জন দ্রামানি মাহামা, সোয়াজিল্যান্ডের রাজা এমসোয়াতি৩,বেনিনের প্রেসিডেন্ট বোনি ইয়াজি, কেনিয়ার প্রেসিডেন্টন উহুরু কেনিয়াত্তা এবং উগান্ডার প্রেসিডেন্ট ইয়োয়েরি মুসেভেনির সঙ্গেও সাক্ষাৎ করবেন মোদি।

এছাড়া লেসোথোর প্রধানমন্ত্রী বেথুয়েল পাকালিথা মোসিসিলি, ডিজিবোতির প্রেসিডেন্ট ইসমাইল ওমার গুয়েল্লেহ, চাদের প্রেসিডেন্ট ইদ্রিস দেবাই ইতনো, মোজাম্বিকার প্রধানমন্ত্রী কার্লোস এগোসতিনহো দো রোজারিও, আফ্রিকান ইউনিয়ন কমিশনের চেয়ারপার্সন এনকোসাযানা ডিলামিনি জুমার সঙ্গেও মোদির সাক্ষাৎ করার কথা রয়েছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ আফ্রিকার আট পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে মঙ্গলবার সাক্ষাৎ করেছেন। বুধবার আরো ১২ জনের সঙ্গে তার সাক্ষাৎ করার কথা রয়েছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের সাক্ষাৎকালে বোকো হারামের বিরুদ্ধে পরিচালিত যুদ্ধে ক্যামেরুনকে সাহায্যের জন্য দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী লেজেউনে এমবেলা সুষমাকে আহ্বান জানিয়েছেন বলে জানিয়েছে দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

গত বছর আগ্নেয়গিরির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল কেপ ভেরদে। দেশটি পুণনির্মানে ভারতের সাহায্য চেয়েছে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী জর্জ হোমেরো টোলেনটিনো হোমেজো।

এছাড়া ভারতকে ‘সবসময় বন্ধু’ বলে সম্বোধন করে জিম্বাবুয়ের এক প্রতিনিধি স্বরাজকে তাদের দেশের কৃষিক্ষেত্রে সহায়তা প্রদানের আহ্বান জানিয়েছেন।






মন্তব্য চালু নেই