মেইন ম্যেনু

আবদুল্লাহ হত্যা মামলা দ্রুত নিষ্পত্তির আশ্বাস খাদ্যমন্ত্রীর

স্থানীয় সংসদ সদস্য ও খাদ্যমন্ত্রী কামরুল ইসলাম কেরানীগঞ্জে শিশু আবদুল্লাহ হত্যা মামলা দ্রুত নিষ্পত্তির আশ্বাস দিয়েছেন। তিনি বুধবার সকালে কেরানীগঞ্জের রোহিতপুর ইউনিয়নের মুগারচর গ্রামে আবদুল্লাহর বাড়িতে যান।

এ সময় তিনি আবদুল্লাহর বাবা-মায়ে সঙ্গে কথা বলেন। তিনি তাদের আশ্বাস দেন, আগামী তিন-চার মাসের মধ্যে এই মামলা নিষ্পত্তি করা হবে।

এদিকে আবদুল্লাহকে অপহরণের ঘটনায় করা সাধারণ ডায়েরিকে (জিডি) মামলা হিসেবে গ্রহণ করা হয়েছে এবং আটক চারজনকে গ্রেফতার দেখানো হয়েছে।

অন্যদিকে আজ সকাল থেকে বিক্ষুব্ধ স্থানীয়রা ঘটনার সন্দেহভাজন মূল হোতা মোতাহারকে গ্রেফতার ও ফাঁসির দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে। ঘটনার পর থেকে মোতাহার পলাতক রয়েছেন।

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার থেকে পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র মো. আবদুল্লাহ (১১) নিখোঁজ ছিল। তাকে খুঁজে না পেয়ে থানায় সাধারণ ডায়েরি করে তার পরিবার। একপর্যায়ে মুঠোফোনে তাকে অপহরণ করা হয়েছে বলে বলা হয় এবং মুক্তিপণ দাবি করা হয়। আবদুল্লাহর পরিবার মুক্তিপণ হিসেবে দুই দফায় দুই লাখ টাকা দেয় অপহরণকারীদের। তবে টাকা নিলেও শিশুটিকে ফেরত দেয়নি অপহরণকারীরা। পরে গতকাল মঙ্গলবার আবদুল্লাহদের প্রতিবেশী মোতাহার হোসেনের বাড়ির একটি কক্ষ থেকে প্লাস্টিকের ড্রামের ভেতর তার গলিত লাশ পাওয়া যায়। প্রধান অভিযুক্ত মোতাহার হোসেন আবদুল্লাহর মায়ের বড় মামা।






মন্তব্য চালু নেই