মেইন ম্যেনু

আবার গুপ্তধন, মাটির নিচে সারি সারি সোনার গয়না-বাসন !

আবার গুপ্তধনের সন্ধান মিলেছে। খানিকটা মাটি খুঁড়তেই পাথুরে আওয়াজ। বহু কসরতের পর বিশাল আকৃতির পাথরটি সরাতেই চোখ কপালে প্রত্নতাত্ত্বিকদের। রাশিয়ায় প্রায় আড়াই হাজার বছরের এসব প্রাচীন সোনার বাসন। নানা আকৃতির পাত্র। বাটি, গ্লাস আরো কত কী বাসন, গয়না।

সবই খাঁটি সোনার। বিজ্ঞানীরা জানাচ্ছেন, বিভিন্ন আনন্দানুষ্ঠানে ওই সোনার পাত্রগুলোতে সিদ্ধি, গাঁজা খেত উপজাতি রাজারা। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে এই সময়।

প্রত্নতাত্ত্বিকরা জানিয়েছেন, খ্রিস্টপূর্ব ৯ শতক থেকে ৪ খ্রিস্টাব্দের মাঝামাঝি কোনো সময়ে বেশ কিছুকাল ইউরোপ ও এশিয়ার একটা বড় অংশ শাসন করেছিল সাইথিয়ান্স নামক একটি উপজাতি। এরা যুদ্ধে খুবই পারদর্শী ছিল।

ওই রাজাদের মধ্যে গাঁজা, ভাং প্রভৃতি নানা নেশা খবুই জনপ্রিয় ছিল। বিশেষ করে অনুষ্ঠানে বা যুদ্ধের পরিকল্পনার আগে রাজাদের নেশা করার জন্য সোনার পাত্র ব্যবহার করা হত। উদ্ধার হওয়া পাত্রগুলো ওই রাজাদেরই।

সোনার পাত্র ও গয়নাগুলোকে আপাতত রাশিয়ার একটি মিউজিয়ামে রাখা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই