মেইন ম্যেনু

‘আমাকে যেভাবে অপমান, অপদস্থ করা হয়েছে, তার সুষ্ঠু বিচার চাই’

জনসমক্ষে লাঞ্ছিত করার বিচার চেয়েছেন নারায়ণগঞ্জের পিয়ার সাত্তার লতিফ উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্ত।

হাসপাতালে চিকিৎসাধীন শ্যামল কান্তি সংবাদিকদের বলেন, ‘আমাকে যেভাবে অপমান, অপদস্থ করা হয়েছে, তার সুষ্ঠু বিচার চাই। আমি সেখানে চাকরি করব বীরের মতো সম্মান নিয়ে।’

এ সময় তিনি তার উন্নত চিকিৎসা নিশ্চিত করার দাবি জানান।

নারায়ণগঞ্জ নগরীর খানপুরের ৩০০ শয্যা হাসপাতালে আজ বুধবার বিকেলে গণমাধ্যমে তিনি এই প্রতিক্রিয়া জানান।

ধর্মীয় বিষয় নিয়ে কটূক্তি করার অভিযোগে শ্যামল কান্তিকে স্থানীয় সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানের সামনে কান ধরে ওঠ-বস করানো হয়। এর আগে স্থানীয় জনতা ওই শিক্ষককে মারধোর করে।

এদিকে, শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের শিক্ষক কর্মচারী কল্যাণ ট্রাস্টের সদস্য সচিব ও স্বাধীনতা শিক্ষক পরিষদের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ মো. শাহজাহান আলম সাজু চিকিৎসাধীন শিক্ষককে দেখতে আসেন। তিনি উপস্থিত সাংবাদিকদের বলেন, একজন শিক্ষক মানুষ গড়ার কারিগর। তিনিও ভুল-ভ্রান্তির ঊর্ধ্বে নন। উনি যদি অন্যায় করে থাকেন, দেশের প্রচলিত আইনে তার বিচারের ব্যবস্থা ছিল। কিন্তু সেখানে যেটা করা হয়েছে, তা অমানবিক, মানবতা বিবর্জিত।

তিনি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে এর সঙ্গে জড়িতদের উপযুক্ত শাস্তি দাবি করেন।

বিকেলে হাসপাতালে গিয়ে দেখা গেছে, নিরাপত্তার মধ্যে প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তিকে চিকিৎসার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে সারাদিন নারায়ণগঞ্জ নগরী ছিল উত্তপ্ত। পক্ষে-বিপক্ষে সমাবেশ হয়েছে। সংবাদ সম্মেলন করে সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানকে গ্রেপ্তারের দাবিও করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই