মেইন ম্যেনু

আমাদের প্রাণ আছে পোশাক নাই আর ওদের প্রাণ নাই পোশাক আছে

প্রদিপ বিশ্বাস: আমার নাম, আমার বাড়ি কোথায় বা কে আমার বাবা-মা আমি কিছুই জানি না। আমাকে মানুষ একএক সময় একএক নামে ডাকে আমায়। আমার বিভিন্ন নাম আর আমার খুব ভাল লাগে । আপনিও আমাকে যে কোন নামে ডাকতে পারেন । বললো আমার দেওয়া নাম (রাসেদ) নামের ছেলেটা । ওর সাথে দেখা আমার রাজধানীর নিউমার্কেট এলাকায় ।

ভার্সিটি থেকে ক্লাশ শেষ করে নিউমার্কেটের দিকে যাচ্ছি কিছু বই কেনার জন্য । হঠাৎ দেখা হলো রাসেদের সাথে । রাসেদ আমাকে বললো ভাইয়া কোথায় যাও, আমি তোমার সাথে যাবো । আমি বলাম আমি নিউমার্কেট যাবো কিছু বই কিনতে হবে । ও বললো চলো আমিও তোমার সাথে যাবো।আমি বললাম তোর আমার সাথে যাওয়ার দরকার নেই । কিন্তু ও আমার কথা শুনলো না । ও আমার পিছু পিছু চলে আসলো । আমি ভাবলাম কিছূ কিনে দিলে চলে যাবে । তাই আমি ওকে মুড়ি কিনে দিলাম আর বললাম এবার খেতে খেতে চলে যা । ও চলে গেলো আর আমি বইয়ের দোকানে চলে গেলাম ।

কিছুখন পর আমি বই কিনে রাস্তা দিয়ে হেঁটে যাচ্ছিলাম । হঠাৎ চোখে পড়লো রাস্তার পাশে একটি কাপরের দোকানে সামনে দাড়িয়ে দাড়িয়ে একটা ছেলে কি যেন দেখছে । ছেলেটার গায়ে ছিল না জামা আর হাতে ছিলো একটি কাগজ টোকানোর ব্যাগ ।

আমি কাছে গিয়া দেখলাম সেই ছেলেটা আর আমি বললাম রাসেদ তুই এখানে কেনো । তখন রাসেদ বললো দেখো ভাইয় আমার শরীরে প্রান আছে অথচ আমার শরীরে বস্ত্র নেই,এর শরীরে প্রান নেই অথচ এর শরীরে দামী পোশাক ।এ কেমন নিয়তি ।

ওর কথা শুনে আমার চোখে জল এসে গেলো আর ভাবলাম যে ওতো ঠিক কথা বলেছে । আমাদের একটু সময় হয় না এই সব মানুষের পাশে এসে সাহায্যের হাতটা বাড়িয়ে দিতে । এই পৃথিবীটা অনেক নিষ্ঠুর পৃথিবী। কারন যাকে দেয় তাকে বেশি করে দেয় আর যাকে দেয় না তাকে কিছুই দেয় না ।






মন্তব্য চালু নেই