মেইন ম্যেনু

আমাদের সমাজে যে ভয়গুলো নিয়ে বেঁচে থাকেন প্রতিটি নারী

সকলের মতেই নারীরা শারীরিক ও মানসিক দিক দিয়ে অনেক বেশি দুর্বল। অবশ্যই পুরুষের তুলনায় শক্তির দিক দিয়ে নারীরা দুর্বল এবং অনেক বেশি মমতা ও আবেগ রয়েছে বলে নারীকে মানসিক দিক দিয়েও দুর্বল ভাবা হয়ে থাকে যদিও ব্যাপারটি সেরকম নয় মোটেও। তবে দুর্বল মনে করা হয়ে বলেই যে নারীকে প্রতিদিন প্রতিনিয়ত ভয় পেয়ে চলতে হবে এমন কোনো কথা নেই, কিন্তু বাস্তবে দেখা যাচ্ছে এই চিত্রটিই। আমাদের সমাজের প্রায় প্রতিটি নারীই প্রতিনিয়ত নানা ভয় নিয়ে বেঁচে থাকেন। কিন্তু একটিবার চিন্তা করে দেখুন শুধুমাত্র নারী হওয়ার কারণেই এইভয় নিয়ে বেঁচে থাকার নাম কি আসলেই বেঁচে থাকা? কেন শুধুমাত্র নারী হিসেবে জন্মানোর কারণে প্রতিদিন এই ভয়গুলোকে সাথে নিয়েই বেঁচে থাকতে হবে নারীদেরকে? নারী নয়, একজন মানুষ হিসেবে তার বেঁচে থাকার কি অধিকার নেই?

১) ঘরে দেরিতে পৌঁছানোর ভয়

প্রায় প্রতিদিনই নারীদের ঘরে পৌঁছানো নিয়ে কথা শুনতে হয় তা সে বিবাহিতা হোক আর অবিবাহিতা হোক। বিবাহিতা হলে নানা সন্দেহের তীর ছুটে আসতে থাকে আর অবিবাহিতা হলে আশংকায় চলতে হয় এমন কিছু যেনো না ঘটে যায় যা পরিবারের জন্য বদনাম বয়ে আনে। প্রতিদিনের এই চিন্তা প্রতিটি নারীর জন্য ভয় পাওয়া ছাড়া অন্য কিছু নয়।

২) অন্যের চোখে খারাপ হওয়ার ভয়

প্রায় প্রতিটি নারীই প্রতিদিন পোশাক পড়া থেকে শুরু করে প্রতিটি বিষয়ে ভয়ে থাকেন যাতে তার চলাচল কারো চোখে খারাপ না হয়ে উঠে। আজকালকার যুগের পুরুষের প্রচলিত ইংরেজি গালিগুলো যাতে তাকে শুনতে না হয়, সে ভয় পেয়ে নিজেকে সব কিছু থেকে গুটিয়ে ভয়ে ভয়েই চলেন নারীরা।

৩) মেয়ে মানুষ কিছুই করতে পারবে না শোনার ভয়

প্রতিদিন নিজেকে নতুন করে প্রমাণ করতে করতে নারীরা ভীত এবং বিরক্ত। মেয়ে বলে সে কিছুই পারে না, তার শারীরিক দিক থেকে শুরু করে মানসিক দিক নিয়েও সকলের প্রশ্ন থাকে প্রতিদিনই। আর এই সমস্যার মুখোমুখি হতে হতে নারীরা নিজেকে নিয়েই ভয় পেতে শুরু করেন।

৪) একা বাড়ি ফিরতে ভয়

বাড়ি ফেরার সময় গলির মোড়ে পুরুষের ছায়া দেখতে ভয় পাওয়াটা প্রতিটি নারীর নিত্যদিনের ভয়। কতোদিন এভাবে ভয় পেয়ে নিজের সব ইচ্ছা, আকাঙ্ক্ষা ও কাজ ফেলে চলে আসা সম্ভব, এই প্রশ্ন প্রায় প্রতিটি নারীর মনেই ঘোরে।

৫) যে কোনো ক্ষমতাসম্পন্ন পুরুষকে ভয়

যে কোনো ক্ষমতাসম্পন্ন পুরুষকে প্রায় প্রতিদিনই কোনো না কোনো কারণে ভয় পেয়ে চলেন নারীরা। কারণ তারা তাদের ক্ষমতার ব্যবহার করে অন্যায় কিছু করলেও প্রমাণের অভাবে পার পেয়ে যেতে পারে অনায়েসেই এবং সমাজের চিরায়ত নিয়ম অনুযায়ী দোষ দেয়া হবে নারীকেই।

৬) একা থেকে যাওয়ার ভয়

বয়স ২০ পার হতে না হতেই বুড়িয়ে গিয়েছে শুনতে শুনতে নারীরা ভীত। নারীরা ভয় নিয়ে চলেন যখন পরিবার পরিজন এবং প্রতিবেশি বলতে থাকেন, যে ২৫ পার হলে কেউ তাকে বিয়ে করতে রাজি হবে না এবং তাকে একাই থেকে যেতে হবে জীবনে।

এলিটডেইলিতে প্রকাশিত, ‘Simple, Everyday Things That Women Are Tired Of Being Scared Of’ – হতে অনুপ্রাণিত






মন্তব্য চালু নেই