মেইন ম্যেনু

আমি আশ্বাস দেয়ার কে?

পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের সংগঠন বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের নেতৃবৃন্দের সাথে প্রায় ঘণ্টাব্যাপী বৈঠকের পর মঙ্গলবার বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে বাইরে এসে শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ সাংবাদিকদের বলেন, শিক্ষা পরিবারের সদস্য হিসেবে যেকোনো সময় আলোচনা করতে পারি, দরকারও আছে।

‘খুবই খোলামেলা পরিবেশে সন্তোষজনক আলোচনা হয়েছে, কীভাবে এগুলো কাটিয়ে উঠা যায়। আপনারা বলতে পারেন আমরা এগোচ্ছি, আমরা খুবই আশাবাদী যে একটা সুষ্ঠু সমাধানের দিকে যাওয়ার জন্য যে কার্যক্রম, সে কার্যক্রমটা আরও বেশি আজকের আলোচনায় এগোলো’, বলেন শিক্ষামন্ত্রী।

মর্যাদা ও বেতন প্রশ্নে বিভিন্ন পর্যায়ে আন্দোলনের পর ১১ জানুয়ারি থেকে লাগাতার কর্মবিরতি পালন করে আসছেন ৩৭টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকেরা। শিক্ষকদের কর্মবিরতির দ্বিতীয় দিন মঙ্গলবার বিকেলে সচিবালয়ে শিক্ষামন্ত্রীর দপ্তরে মন্ত্রীর সঙ্গে বেঠক করেন পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের সংগঠন বাংলাদেশ শিক্ষক সমিতি ফেডারেশনের সভাপতি অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ ও মহাসচিব অধ্যাপক ড. এ এস এম মাকসুদ কামাল।

এসময় আরো উপস্থিত ছিলেন শিক্ষাসচিব সোহরাব হোসাইন।

আন্দোলন প্রত্যাহারের আশ্বাস দিয়েছেন কি না- এমন প্রশ্নে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘আমি আশ্বাস দেয়ার কে? আমি শিক্ষা পরিবারের সদস্য বা সরকারেরও সদস্য। আমরা চাইবো যেনো এমন একটা সন্তোষজনক সমাধান আসে, যেখানে আমাদের সম্মানিত শিক্ষকদের সত্যিকার অর্থেই সম্মান বজায় থাকে, সম্মানিত হয়ে থাকেন এবং একই সঙ্গে যেন বেতন বা এ ধরনের বিষয়গুলো নিয়ে যে সমস্যা হয়েছে, সেগুলো যেন সমাধান করা যায়। সেই আলোচনা হয়েছে।’

সমস্যা সমাধানে কতদিন সময় লাগতে পারে- জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘নির্ধারিত বিষয় নিয়ে বসিনি, এ আলোচনা হয়নি।’ কর্মসূচি বন্ধ রাখার বিষয়ে আলোচনা হয়নি বলে সাংবাদিকদের প্রশ্নে বলেন মন্ত্রী। তিনি বলেন, ‘আলোচনা হয়েছে কিভাবে সমস্যা কাটিয়ে উঠতে পারি। আলোচনা এগোচ্ছে।’

সমাধানের পথ বের হবে কি না- প্রশ্নে শিক্ষামন্ত্রী বলেন, ‘নিশ্চয়ই বের হবে।’ এসময় শিক্ষক নেতা ফরিদ উদ্দিনও বলেন, ‘অবশ্যই বের হবে।’

বেতন বৈষম্য নিরসন সংক্রান্ত পুনর্গঠিত মন্ত্রিসভা কমিটির মিটিং শিগগিরই হচ্ছে কি না- জানতে চাইলে মন্ত্রী বলেন, ‘সেটা কমিটির চেয়ারম্যান ডাকতে পারেন, বলতে পারবেন। সমস্যা কীভাবে সমাধান করা যায়, সেই বিষয়গুলো আজকে বেশি জোর দিয়েছি, সেটি বেশি দরকার।’

শিক্ষামন্ত্রীর বক্তব্যের আগে শিক্ষক নেতা ফরিদ উদ্দিন বলেন, ‘সৃষ্ট সমস্যার সুষ্ঠু সমাধানের জন্য আলোচনা, আমরা সব সময় এগোতে চাই, সেজন্য আমরা এগোচ্ছি, আলোচনা করছি, আরো আলোচনা চলবে, এক জায়গায় পৌঁছে যাবো। খুবই আন্তরিক পরিবেশে আলোচনা করেছি।’

আন্দোলন চলবে কি না- এ বিষয়ে বলেন, ‘আন্দোলন চলবে, এখন পর্যন্ত ওই জায়গায় কোনো সিদ্ধান্ত নেইনি।’






মন্তব্য চালু নেই