মেইন ম্যেনু

আমি কখনও মন্ত্রী হতে পারিনি : রাষ্ট্রপতি

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ বলেছেন, আমি প্রথমে স্পিকার এবং পরে রাষ্ট্রপতি হতে সক্ষম হলেও কখনও মন্ত্রী হতে পারিনি। তাই আমার কোনো ক্ষমতা নেই। আমাকে শুধু মন্ত্রীদের অনুরোধ করে যেতে হয়।

তিনি আজ রোববার বিকেলে কিশোরগঞ্জে আজিম উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয়ের শতবর্ষপূর্তি উদযাপন উপলক্ষে আয়োজিত ছাত্র-শিক্ষক সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যের একপর্যায়ে স্থানীয় দাবি-দাওয়ার প্রেক্ষিতে রসিকতা করে এ কথা বলেন।

তিনি এসময় ‘দূরের মানুষ কাছে আসো, যদি আমার গান শুনতে চাও’ এই গানটির কলি উল্লেখ করে বলেন, আমার মঞ্চের চারপাশ ঘিরে যেভাবে বাঁশের বেড়া দেওয়া হয়েছে এতে করে দূরের মানুষ কাছে আসবে দূরের কথা, উল্টো কাছের মানুষ দূরে চলে যায়।

স্বাধীন দেশের নাগরিক হিসেবে আমাদের স্বপ্ন এবং স্বপ্ন জয়ের ইচ্ছে থাকতে হবে। আর এ স্বপ্ন পূরণে থাকতে হবে শিক্ষার পাশাপাশি অধ্যবসায়, চর্চা ও প্রচেষ্টা।

রাষ্ট্রপতি বলেন, আমরা এখন একবিংশ শতাব্দীতে বাস করছি। বিশ্ব এখন পূর্বের যেকোনো সময়ের তুলনায় অনেক বেশি প্রতিযোগিতামূলক ও চ্যালেঞ্জিং। এই চ্যালেঞ্জকে মোকাবিলা করেই আমাদেরকে এগিয়ে যেতে হবে। নতুন প্রজন্মকে জ্ঞান বিজ্ঞানে ও দক্ষতায় হতে হবে বিশ্বমানের।

তিনি শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন, দেশ ও জাতির কল্যাণই হবে তোমাদের মূল লক্ষ্য ও উদ্দেশ্য। কোনো ধরনের লোভ-লালসা ও হীন স্বার্থ চরিতার্থের মনবৃত্তি যেন তোমাদের কমল মনকে কলুষিত করতে না পারে সে ব্যাপারে সজাগ থাকতে হবে।

জনগণের অর্থে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরিচালিত হয়। বিধায় দেশ ও জনগণের কাছে আমরা প্রত্যেকেই দায়বদ্ধ উল্লেখ করে তিনি শিক্ষকদের উদ্দেশে বলেন, ছাত্র-ছাত্রীদেরকে সুশিক্ষিত ও দক্ষ মানবসম্পদে পরিণত করতে জ্ঞান ও অভিজ্ঞতার মাধ্যমে সর্বাত্মক প্রচেষ্টা চালিয়ে যেতে হবে।

উপবৃত্তি ও বিনামূল্যে বই বিতরণের উদাহরণ দিয়ে তিনি বলেন, শিক্ষার প্রসার ও মান উন্নয়নে সরকার আন্তরিক ও সচেষ্ট রয়েছে।

রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ কিশোরগঞ্জে একটি পূর্ণাঙ্গ পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপনে প্রধানমন্ত্রী একমত হয়েছেন জানিয়ে অবিলম্বে এর নির্মাণ কাজ শুরু হবে বলে ঘোষণা দেন।

তিনি আজিম উদ্দিন হাই স্কুলের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের দাবির প্রেক্ষিতে বিদ্যালয়টিকে সরকারিকরণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দেন। সবশেষে তিনি তিন দিনব্যাপী উৎসবের উদ্বোধন ঘোষণা করেন।

শতবর্ষ পূর্তি উদযাপন কমিটির সভাপতি আবুল কাশেমের সভাপতিত্বে সমাবেশে অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন-শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী মুজিবুল হক চুন্নু এবং সংসদ সদস্য সোহরাব উদ্দিন, আফজাল হোসেন ও রেজওয়ান আহমেদ তৌফিক।

এর আগে তিন দিনব্যাপী অনুষ্ঠানমালার অংশ হিসেবে আজ সকালে একটি বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা স্কুল প্রাঙ্গণ থেকে শুরু হয়ে শহরের বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিণ শেষে একই স্থানে এসে শেষ হয়।






মন্তব্য চালু নেই