মেইন ম্যেনু

আমি মেসি হলে আর্জেন্টিনার হয়ে খেলতাম না: মার্টিনো

ব্যপক সমালোচনা সত্তেও জাতীয় দলের হয়ে যেভাবে খেলা চালিয়ে যাচ্ছেন লিয়নেল মেসি, তার জায়গায় থাকলে আর্জেন্টিনার হয়ে খেলতেন না বলেই মন্তব্য করেছেন আর্জেন্টাইন কোচ জেরার্ডো মার্টিনো।

গত মাসে স্বাগতিক চিলির কাছে কোপা আমেরিকার ফাইনালে পরাজিত হবার পরে আবারো আর্জেন্টিনার ব্যর্থতার দায়ভার যেন পুরোটাই দেয়া হয়েছে মেসির ওপর। বিশ্বকাপের পরে কোপা আমেরিকায় শিরোপার এত কাছাকাছি গিয়ে ব্যর্থ হওয়ায় সমর্থক এবং গণমাধ্যমের তোপের মুখে পড়তে হয়েছে এই তারকাকে। তাদের সাথে আরো যোগ দিয়েছেন আর্জেন্টিনার সর্বকালের সেরা ফুটবলার দিয়েগো ম্যারাডোনা।

১০৩টি আন্তর্জাতিক ম্যাচে ৪৬ গোল করা ২৮ বছর বয়সী মেসিকে নিয়ে বাজে মন্তব্য করতেও কোন ছাড় দেননি ম্যারাডোনা। যদিও বার্সেলোনায় মেসিকে কোচিং দেয়া মার্টিনো চারবারের বিশ্বসেরা খেলোয়াড়কে বেশ জোড়ালোভাবেই সমর্থন করেছেন। একইসাথে স্পষ্টভাষায় জানিয়ে দিয়েছেন জাতীয় দলে ফরোয়ার্ড লাইনে তাকে নিয়ে যে ধরনের সমালোচনা ও চাপ সৃষ্টি হয়েছে তার সবকিছুকে পিছনে ফেলে মেসি ঠিকই নিজেকে প্রমান করবেন।

আর্জেন্টাইন গণমাধ্যম ফক্স স্পোর্টসে মার্টিনো বলেছেন, আমি যদি মেসির জায়গায় থাকতাম তাহলে অনেক আগেই জাতীয় দল ছেড়ে চলে যেতাম। তার থেকে ক্লাবে খেলার প্রতি আরো মনোযোগী হতাম। আমার মুখ থেকে বা আর্জেন্টাইন ফুটবল এসোসিয়েশনের সভাপতির মুখ থেকে কখনই মেসির সম্পর্কে কোন সমালোচনা শোনা যায়নি।

কেউই দাবী করতে পারবে না মেসি কোনদিন কোন প্রীতি ম্যাচে অংশ নেয়নি। গত মৌসুমে বার্সেলোনার হয়ে ট্রেবল জয় করার পরে দারুন ফর্ম নিয়েই মেসি কোপা আমেরিকায় খেলতে এসেছিলেন। কিন্তু তার ক্যারিয়ারে এই নিয়ে দ্বিতীয়বারের মত আর্জেন্টিনা শিরোপা বঞ্চিত হলো। ২০১৪ সালে জার্মানদের কাছে ১-০ গোলে পরাজিত হয়ে রানার্স-আপ হবার পরে এই ফলাফল সত্যিই হতাশাজনক। জাতীয় দলের হয়ে ২০০৮ বেইজিং অলিম্পিকে স্বর্ণ জয়ই মেসির একমাত্র শিরোপা।






মন্তব্য চালু নেই