মেইন ম্যেনু

আমেরিকার প্রেসিডেন্ট হিসেবে হিলারিকেই চান লিওনার্দো

মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নিয়ে উত্তাপ চরমে। শুধুমাত্র কথার মারপেঁচ নয়, ডেমোক্রেট আর রিপাবলিকান সমর্থকদের মধ্যে শুরু হয়ে কাদা ছোড়াছুড়ি। একজনের বিরুদ্ধে অন্যজন কুৎসা রটনা করেই যাচ্ছেন, বিশেষ করে রিপাবলিকান ডোনাল্ড ট্রাম্প এই জায়গায় বেশ সরব! আর এমন অবস্থায় ডেমোক্রেট পার্টি থেকে মনোনয়ন পাওয়া প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনের প্রতি সমর্থন জানিয়ে আলোচনায় অস্কারজয়ী হলিউড সুপারস্টার লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও।

আমেরিকার প্রেসিডেন্ট নির্বাচন নিয়ে চারদিকে উত্তাপ যখন চরমে, তখন নিজের সমর্থেনের কথা সোশাল সাইটে জানিয়ে খবরের পাতায় লিওনার্দো ডিক্যাপ্রিও। তিনি যৌক্তিক কারণেই ডেমোক্রেটিক পার্টি থেকে মনোনয়ন পাওয়া প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হিলারি ক্লিনটনকে সমর্থন জানাচ্ছেন বলে টুইট করেন।

সম্প্রতি কথিত মেয়ে বন্ধু নিনা আগদাল ও বন্ধু টবে মেগুরের সাথে স্পেনে সময় কাটাতে দেখা গেছে লিওনার্দোকে। অবকাশে থাকলেও আমেরিকার নির্বাচনের উত্তাপ ছুঁয়ে যাচ্ছে তাকেও। আর প্রতিদ্বন্দিতামূলক এই প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে নিজের সমর্থনের কথা স্পষ্টভাবেই জানালেন এই ‘দ্য রেভিনেন্ট’ খ্যাত সুপারস্টার।

ডোনাল্ড ট্রাম্পের সমালোচনা চারদিকে। রিপাবলিকান থেকে মনোনীত এই প্রেসিডেন্ট প্রার্থীর বাজে আচরণ আর প্রতিহিংসামূলক কথাবার্তার জন্যে এরইমধ্যে নামিদামি মানুষেরা তাকে সমর্থন করছেন না। এরজন্যেতো বটেই, আরো একটি কারণে হিলারিকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে দেখতে চান টাইটানিকের সেই বিখ্যাত ক্যাপ্রিও।

জলবায়ু পরিবর্তনে বিশেষ ভূমিকা রাখবে হিলারি। আর এইজন্যই ট্রাম্পকে নয়, হিলারিকেই প্রেসিডেন্ট হিসেবে দেখতে চান লিওনার্দো। টুইটে লিওনার্দো জানান, বিজ্ঞানে আমার পুরো আস্থা। আর আমি বিশ্বাস করি জলবায়ু পরিবর্তনে হিলারির চেয়ে আর কেউ যোগ্য নয়।

জনসম্মুখে হিলারিকে নিয়ে লিওনার্দোর এই উচ্ছ্বাস নির্বাচনের আগে বেশ কাজে দেবে বলে মনে করছে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। এখন দেখার বিষয় আসন্ন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে লিওনার্দোর পছন্দের প্রার্থী কতোটা আশান্বিত করতে পারেন!

অন্যদিকে বৈশ্বিক উষ্ণতা, ভয়াবহ পরিবেশ বিপর্যয়, সবুজ বন উজাড়, কার্বন গ্যাসের উদ্গিরণের ফলে পৃথিবীর অস্তিত্ব আজ ভয়াবহ সংকটের মুখে। আর এই বিষয় নিয়ে বরাবরউ সোচ্চার লিওনার্দো। বিশ্বে জলবায়ু পরিবর্তনে সবচেয়ে ক্ষতিকর ভূমিকা পালন করছে নিজের দেশ আমেরিকা, এমনটি এরআগে বহুবার বলেছেনও তিনি। এমনকি আমেরিকা ও চীনের উদ্দেশে জলবায়ু পরিবর্তনে বিশেষ ভূমিকা পালন করার আহ্বান জানিয়েছেন।

জলবায়ু পরিবর্তনে তার সাম্প্রতিক সময়ে লিওনার্দোর ভূমিকা পুরো বিশ্বে প্রশংসিত। এমনকি চলতি বছরে প্রথমবার অস্কারজয়ের পর সবার উদ্দেশে যখন ভাষণ দিতে উঠলেন ডিক্যাপ্রিও, তখনও তার মুখ থেকে অধিকাংশ কথা শোনা গেছে পরিবেশ আর জলবায়ু আন্দোলনের সুফল ও কুফল নিয়ে। ভাষণেও তিনি বিশ্বের সকল গ্রিনহাউস গ্যাস নিঃসরণকারী দেশের প্রতি পরিবেশ বান্ধব পদ্ধতি গ্রহণ করতে আহ্বান জানিয়ে ছিলেন।






মন্তব্য চালু নেই