মেইন ম্যেনু

আর ‘হিন্দু রাষ্ট্র’ থাকছে না নেপাল

নেপালের নতুন সংবিধান আনুষ্ঠানিক ভাবে গৃহীত হতে যাচ্ছে আজ আরো পরের দিকে।

সংবিধান নিয়ে দেশটির রাজনৈতিক দলগুলো বছরের পর বছর বিতর্ক করেছে।

নতুন এই সংবিধান অনুযায়ী নেপাল রাষ্ট্রটি এখন থেকে ধর্ম নিরপেক্ষ রাষ্ট্র হবে এবং সাতটি প্রদেশে ভাগ হবে হিমালয়ের পাদদেশের এই রাষ্ট্রটি।

কিন্তু ধর্ম নিরপেক্ষতার প্রশ্নে কিছু দল বিরোধিতা করে আসছে। তারা চাচ্ছে নেপালকে হিন্দু রাষ্ট্র হিসেবেই রাখতে।

অপরদিকে সংখ্যালঘু কিছু কিছু সম্প্রদায় মনে করছে সাতটি প্রদেশে ভাগ করার ফলে তারা বৈষম্যের শিকার হবে।

দেশটির দক্ষিণের থারু ও মাধেসি জাতিগোষ্ঠীর মানুষেরা কয়েক সপ্তাহ ধরে বিক্ষোভ করে অচল করে দিয়েছে ঐ এলাকা।

সেসময় অন্তত ৪০ জন নিহত হন। এদিকে বিক্ষোভ নিয়ন্ত্রণ করার জন্য কর্তৃপক্ষ কারফিউ জারি করেছে। নিরাপত্তা বাহিনীর উপস্থিতিও জোরদার করা হয়েছে।

এদিকে রাজধানী কাঠমান্ডুতে বিক্ষোভের কারণে সড়কে যান চলাচল ব্যহত হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী সুশীল কৈরালার একজন উপদেষ্টা প্রতীক প্রধান অবশ্য বলেছেন “ নতুন সংবিধান হল নেপালের মানুষের বহু বছরের সংগ্রামের ফল”।

এদিকে ২৮ মিলিয়ন জনসংখ্যার দেশ নেপাল, গত এপ্রিলে ঘটে যাওয়া ভূমিকম্পের ধাক্কা সামলিয়ে ওঠার চেষ্টা করছে প্রাণপন । বিবিসি বাংলা






মন্তব্য চালু নেই