মেইন ম্যেনু

আ`লীগের এমপির বিরুদ্ধে মামলা করল ইসি

ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে আচরণবিধি আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগে বরগুনা-২ আসনের সাংসদ শওকত হাচানুর রহমান রিমনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করতে চিঠি পাঠিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

রোববার ক্ষমতাসীন দলের এ সাংসদের বিরুদ্ধে মামলা করে ইসিকে অবহিত করতে বরগুনা পুলিশ সুপারকে এ নির্দেশ পাঠানো হল।

ইসির নির্বাচন পরিচালনা শাখার উপ সচিব সামসুল বলেন, “ বৃহস্পতিবার মামলা করার বিষয়ে ইসির সিদ্ধান্ত দিয়েছেন। রোববার বিকালে পুলিশ সুপারকে নির্দেশনা বাস্তবায়নের জন্য চিঠি দিয়েছি।

চিঠিতে বলা হয়েছে, ৫ মার্চ ক্ষমতাসীন দলের এ সাংসদদ বরগুনার বেতাগী উপজেলার বেতাগী ইউনিয়নের কিসমতপুর ও কেওড়াবুনিয়া গ্রামে নতুন বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইনের উদ্বোধন করেছেন।

“যা ইউপি আচরণবিধিমালার সুস্পষ্ট লঙ্ঘন। বিধি লঙ্ঘন করায় ৩১ দফা অনুসারে এ সাংসদের বিরুদ্ধে মামলা করে ইসিকে অবহিত করতে হবে”।

আচরণবিধির ৩১ দফায় বলা হয়েছে, আচরণবিধি লঙ্ঘন শাস্তিযোগ্য অপরাধ। প্রার্থী বা তার পক্ষে এ বিধান লঙ্ঘন করলে সর্বোচ্চ ছয় মাসের কারাদণ্ড বা ১০ হাজার টাকা জরিমানা বা উভয় দন্ডে দন্ডিত হবেন সংশ্লিষ্ট ব্যক্তি। রাজনৈতিক দলও এ বিধি লঙ্ঘন করলে ১০ হাজার টাকা জরিমানার বিধান রয়েছে।

কাজী রকিবউদ্দীন আহমদ নেতৃত্বাধীন ইসির অধীনে সংসদ, সিটি, উপজেলা, পৌরসভার ভোট হয়েছে। ইতোমধ্যে আচরণবিধি লঙ্ঘনের জন্য সাংসদদের সতর্ক করে নোটিশ দেওয়া, স্পিকার ও প্রধান মন্ত্রীর কাছে নালিশ করা হয়েছিল।গত ৪ বছরে কোনো সাংসদের বিরুদ্ধে মামলার বিষয়ে নজির নেই।

অবশ্যই এটিএম শাসুল হুদার নেতৃত্বাধীন ইসি উপজেলা ভোটের সময় ভোটকেন্দ্রে প্রভাব দেখানোর কারণে ক্ষমতাসীন দলের সাংসদ পশুমন্ত্রী আবদুল লতিফ বিশ্বাসের বিরুদ্ধেও মামলা করেছিল।

সে সময় বিষয়টি আদালতে গড়ালে উপযুক্ত সাক্ষ্য প্রমাণ না পাওয়ায় তা থেকে অব্যাহিত পান সাংসদ বিশ্বাস।






মন্তব্য চালু নেই