মেইন ম্যেনু

আলেপ্পোতে ত্রাণ বহরে বিমান হামলা

সিরিয়ার আলেপ্পো শহরে বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত একটি এলাকার কাছে একটি ত্রাণবাহী গাড়িবহরে বিমান হামলা চালানো হয়েছে। সিরীয় সেনাবাহিনী প্রায় সপ্তাহব্যাপী একটি অস্ত্রবিরতির অবসান ঘোষণা করার কয়েক ঘণ্টা পর এই হামলার ঘটনা ঘটলো। খবর বিবিসির।

সিরীয় রেড ক্রিসেন্টের সদস্যরা জাতিসংঘের ঐ ত্রাণবাহী বহরটি নিয়ে যাচ্ছিল বলে জানা গেছে। আলেপ্পোর উর্ম আল খুবরা এলাকায় যাবার পথে জাতিসংঘের ত্রাণবাহী গাড়ি বহরটি হামলার শিকার হয়। বিমান হামলায় বেশ কয়েকজন হতাহত হয়েছে বলে খবর পাওয়া গেছে।

অসমর্থিত একটি সূত্র জানিয়েছে, বিমান হামলায় ১২ জন নিহত হয়েছে। তবে হতাহতের সংখ্যা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।

জাতিসংঘের এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, ত্রাণবাহী ৩১টি ট্রাকের মধ্যে ১৮টি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে বলে তারা জানতে পেরেছেন। তবে বিমান হামলার বিষয়ে তারা নিশ্চিত নন। সিরিয়া বিষয়ক জাতিসংঘের বিশেষ দূত, স্টেফান ডি মিসটুরা এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন, এই ঘটনায় তারা বেশ ক্ষুব্ধ হয়েছেন।

সিরিয়ায় অস্ত্রবিরতির অবসান ঘোষণা করার কিছু পরেই আলেপ্পো শহরে যুদ্ধবিমান থেকে বোমা হামলা শুরু হয়। বিদ্রোহীরা অস্ত্রবিরতির শর্ত ভেঙ্গেছে বলে অভিযোগ করছে সিরীয় সেনাবাহিনী।

তবে ত্রাণ বহরে কারা বিমান হামলা চালিয়েছে সে বিষয়টি এখনো নিশ্চিত নয়। কোনো গোষ্ঠীই এখন পর্যন্ত ওই হামলার দায় স্বীকার করেনি। সিরিয়ান অবজারভেটরি ফর হিউম্যান রাইটস বলছে, সরকারি অথবা রুশ যুদ্ধবিমান থেকে এই হামলা চালানো হয়েছে। তবে সিরীয় সরকার এ বিষয়ে কোন মন্তব্য করেনি।

সিরীয় রেড ক্রিসেন্ট বলছে, আক্রান্ত ত্রাণবহরটি আলেপ্পো থেকে নিয়মিত কার্যক্রমের অংশ হিসেবে বিদ্রোহী নিয়ন্ত্রিত প্রত্যন্ত এলাকার দিকে যাচ্ছিল। অনলাইনে প্রকাশিত কিছু ছবিতে অনেকগুলো দীর্ঘাকৃতির ট্রাক এবং লরিতে আগুন জ্বলতে দেখা গেছে।






মন্তব্য চালু নেই