মেইন ম্যেনু

আশাবাদী ওয়াসিম আকরাম

দুই দফায় আগালেও কিছুই হয়নি। অংকুরেই বিনষ্ট হয়েছে টুর্নামেন্টটি। যেখানে মূল সমস্যা ছিল স্পন্সর ও লজিস্টিক সাপোর্ট। তবে এবার বেশ আশাবাদী পাকিস্তানের কিংবদন্তী ক্রিকেটার ওয়াসিম আকরাম। তার আশা, এবার হবেই পাকিস্তান টি-২০ লিগ।

ঘরের মাঠে পাকিস্তানের ক্রিকেট পরবাসী সেই ২০০৯ সাল থেকে। কিছুদিন আগে জিম্বাবুয়ের ক্রিকেট দল পাকিস্তান সফর করলেও এখনও কলঙ্কমুক্ত হতেপারেনি পাক শিবির। বিদেশী প্লেয়ারদের অংশগ্রহণে আসন্ন এই টুর্নামেন্টের মধ্য দিয়ে পাকিস্তান নতুন অধ্যায় শুরু করতে পারবে বলেই আশা দেশটির সাবেক ক্রিকেটারদের।

তবে এই টুর্নামেন্টটি হবে না পাকিস্তানে। গত মাসে পাকিস্তানের পক্ষ থেকে ঘোষণা দেয়া হয়েছিল, এই টুর্নামেন্টটি হবে কাতারের রাজধানী দোহায়। এই টুর্নামেন্ট প্রথম হওয়ার কথা ছিল ২০১৪ সালে। তা ভেস্তে যায় নানা সমস্যায়। পরে হওয়ার কথা ছিল চলতি বছরে। কিন্তু তাও হয়নি। এবার দেখা যাক ‍তৃতীয় প্রচেষ্টায় কতদূর যেতে পারে পাকিস্তান।

এই টুর্নামেন্টে খেলবে পাকিস্তানের খেলোয়াড়রা। সঙ্গে থাকবে প্রায় ৪০জন বিদেশী ক্রিকেটার। সব মিলিয়ে টুর্নামেন্টটি হবে আন্তর্জাতিক আবহের। এ প্রসঙ্গে ওয়াসিম আকরাম বলেছেন, ‘এই টুর্নামেন্টের অ্যাম্বাসেডর হওয়ার প্রস্তাব পেয়েছি আমি। সত্যিই আমি খুব রোমাঞ্চিত। এই টুর্নামেন্ট্ হলে দেশী ক্রিকেটারদের ম্যাচ খেলার অভিজ্ঞতা বাড়বে, সঙ্গে তারা লাভবান হবে অর্থের দিক থেকেও।’

তিনি আরও বলেন, ‘পাকিস্তানের জন্য এরকম একটি লিগ খুবই দরকার। আমরা সে লক্ষ্যে কাজ করছি। মধ্যপ্রাচ্যে এধরনের একটি টুর্নামেন্ট আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে পাকিস্তানকে উঁচু স্থানে নিয়ে যাবে।’ ওয়াসিম আকরামের পাশাপাশি এই টুর্নামেন্টের অ্যাম্বাসেডর হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে পাকিস্তানের সাবেক অধিনায়ক রমিজ রাজারও।



« (পূর্বের সংবাদ)



মন্তব্য চালু নেই