মেইন ম্যেনু

আড়াই বছরের শিশুর বুদ্ধিতে কুপোকাত মায়ের ধর্ষকরা

উপস্থিত বুদ্ধিতে বড়দের থেকে কোনো অংশে কম নয় দুধের শিশুরা। সশস্ত্র ডাকাত-ধর্ষকদের হামলায় বিচলিত না হয়ে মা ও প্রতিবেশী এক তরুণীকে রক্ষা করলো আড়াই বছরের শিশু। আর তার বুদ্ধিতেই পুলিশের জালে ধরা পড়লো ৫ অপরাধী।

ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের হরিয়ানার গুরগাঁওয়ের সেক্টর ১০ এলাকায়।

জানা গেছে, সোমবার বিকেল ৪টার দিকে এক বাড়িতে হানা দেয় ৫ সদস্যের এক সশস্ত্র ডাকাত দল। তাদের মধ্যে একজন গাড়ি নিয়ে বাইরে অপেক্ষা করছিল। প্রথমে তারা দোতলায় হানা দেয়। বাড়িতে আড়াই বছরের মেয়ে নিয়ে একাই ছিলেন মা। তার হাত-পা বেঁধে ধর্ষণ করে। সেই সঙ্গে বাসায় ডাকাতি করে দুষ্কৃতিকারীরা। যদিও শিশুটিকে বাঁধেনি ডাকাতরা।

এরপর তিনতলায় হানা দেয় অপরাধীরা। সেখানে ৬ বছরের এক ভাইঝির সঙ্গে বাড়িতে একাই ছিলেন এক তরুণী। তার মাথায় বন্দুক ঠেকিয়ে হাত-পা বাঁধে হামলাকারীরা। তাকেও ধর্ষণ করে ডাকাতরা।

তবে ডাকাত-ধর্ষকেরা যখন তিনতলায় তখন উপস্থিত বুদ্ধিকে কাজে লাগিয়ে মায়ের বাঁধন খুলে দেয় আড়াই বছরের শিশুটি। পরে চিৎকার শুরু করেন ওই নারী। তার চিৎকারেই জড়ো হয় লোকজন। বাসায় ঢুকে এক অপরাধীকের ধরে ফেলে তারা।

ডাকাতদের মারধর করে খবর দেয়া হয় পুলিশকে। ঘটনাস্থলে এসে সশস্ত্র এক দুষ্কৃতিকারীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। তবে নারীর চিৎকার শুনে আগেই পালিয়েছিল চারজন।

কিন্তু পালিয়ে যাবে কোথায়? গ্রেপ্তার হওয়া ডাকাতকে জেরা করে বাকিদের উত্তরপ্রদেশের সিকানদরাবাদ থেকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হয় পুলিশ।






মন্তব্য চালু নেই