মেইন ম্যেনু

আয়-ব্যয়ের হিসাব চেয়ে ৪০ দলকে ইসির চিঠি

২০১৪-১৫ অর্থবছরে আয়-ব্যয়ের হিসাব চেয়ে ৪০টি রাজনৈতিক দলকে চিঠি দিয়েছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। আগামী ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে দলগুলোকে হিসাব জমা দিতে বলা হয়েছে। তবে উচ্চ আদালত নিবন্ধন অবৈধ ঘোষণা করায় জামায়াতে ইসলামী বাংলাদেশকে কোনো চিঠি দেয়নি ইসি।

নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের সচিব মো. সিরাজুর ইসলাম বৃহস্পতিবার বিকেলে চিঠি দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘রাজনৈতিক দলগুলোর জন্য প্রতিবছরের ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে আগের পঞ্জিকা বছরের আর্থিক আয়-ব্যয়ের হিসাব জমা দেওয়ার আইনি বাধ্যবাধকতা রয়েছে। সে হিসেবে তাদের চিঠি পাঠানো হয়েছে।’

দলের মহাসচিব বরাবর পাঠানো ইসির সহকারি সচিব রৌশন আরা স্বাক্ষরতি ওই চিঠিতে বলা হয়, ‘৩১ জুলাইয়ের মধ্যে ২০১৪-১৫ অর্থবছরের আর্থিক লেনদেন একটি রেজিস্টার্ড চার্টার্ড একাউন্টিং ফার্মকে দিয়ে নিরীক্ষা করে ইসিতে জমা দিতে হবে। প্রতিবেদন পাওয়ার পর তা পর‌্যালোচনা করে ইসি তা ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হবে।’

গণপ্রতিনিধিত্ব আদেশের (আরপিও) রাজনৈতিক দল নিবন্ধন বিধিমালা অনুযায়ী প্রতিবছর দলের বার্ষিক লেনদেনের প্রতিবেদন ইসিতে দিতে হয়। পরপর তিন বছর তা দিতে ব্যর্থ হলে নিবন্ধন বাতিল করতে পারে ইসি।

ইসি সূত্র জানায়, পরপর দুই বছর লেনদেনের প্রতিবেদন জমা দেয়নি গণফ্রন্ট। নিবন্ধন রক্ষা করতে দলটিকে এবার অবশ্যই প্রতিবেদন দিতে হবে। এ ছাড়া বিকল্প ধারা বাংলাদেশও গত অর্থবছরের প্রতিবেদন নির্ধারিত সময়ে দিতে ব্যর্থ হয়।

গঠনতন্ত্র সংবিধানের সঙ্গে সাংঘর্ষিক হওয়ায় ২০১৩ সালের ১ আগস্ট বিচারপতি এম মোয়াজ্জম হোসেন, বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম, এবং বিচারপতি কাজী রেজা-উল হকের বেঞ্চ জামায়াতের নিবন্ধন অবৈধ বলে ঘোষণা করেন। এরপর থেকে দলটির আয়-ব্যয়ের হিসাব চেয়ে চিঠি দেয়নি ইসি।






মন্তব্য চালু নেই