মেইন ম্যেনু

ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে খেলতে পারবেন তো মাশরাফি?

তার পুরনো ইনজুরি ও বড় বড় অপারেশন হয়েছে যেখানে, সেই হাঁটুতে নয়, ব্যাথা পেয়েছেন গোড়ালিতে। তারপরও টাইগার অধিনায়ক মাশরাফির ইনজুরি নিয়ে চিন্তার বলিরেখা সবার চোখে মুখে। আফগানিস্তারে সাথে স্বস্তির সিরিজ বিজয়ের রাতে মাশরাফির ইনজুরি খানিক শঙ্কার কারণ বৈ কি।

কতটা গুরুতর মাশরাফির ইনজুরি? ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজ খেলতে পারবেন তো? পারলেও পুরো সিরিজ, মানে প্রথম থেকে মাঠে নামা সম্ভব হবে?

শনিবার খেলা শেষ হবার পর থেকে ভক্ত ও অনুরাগীদের সংশয়মাখা প্রশ্ন। এখনই এর সত্যিকার জবাব নেই। খেলা শেষে মাশরাফি নিজেও পরিষ্কার করে কিছু বলতে পারেননি। পারার কথাও নয়।

তবে প্রেস কনফারেন্সে অকপটে স্বীকার করেছেন, এখনো ব্যাথা আছে এবং আঘাত পাওয়া জায়গাটা ফুলেও গেছে। ইনজুরি সম্পর্কে নড়াইল এক্সপ্রেসের ব্যাখ্যা, আমি আবার দাঁড়ানোর পর কিন্তু আর ফুল রানআপে বল করিনি। ব্যাথা নিয়ে শর্ট রানআপে বোলিং করেছি।

মাশরাফিকে যারা চেনেন, তাদের সবার জানা অসম্ভব মনের জোর তার। ছোট-খাট ইনজুুরি তার কাছে কিছু না। কাজেই আঘাত গুরুতর না হলে হয়ত ৭ অক্টোবর ইল্যান্ডের বিপক্ষে ঠিক মাঠে নেমে পড়বেন। তারপরও কথা থেকে যায়।

নিশ্চয়ই এক্সরে হবে। তার রিপোর্টের ওপর নির্ভর করবে অনেক কিছুই। এক্সরে কিংবা এমআরআই না করা পর্যন্ত ইনজুুরির প্রকৃত ধরণ জানার উপায় নেই। তবে এটা নির্ভর করবে তার ব্যাথা ও ফোলার ওপর। ব্যাথা ও ফোলা কমে যাওয়া মানে ধরে নিতে হবে ইনজুরি গুরুতর নয়।

তবে ইনজুরি খুব গুরুতর না হলেও সামনের কটা দিন তার সম্পুর্ণ বিশ্রাম প্রয়োজন। এদিকে আর মাত্র ৫ দিন পর ইংলিশদের বিপক্ষে ওয়ানডে সিরিজ শুরু। এ কদিন পুর্ণ বিশ্রামে থাকার পর ব্যাথা কমলেও মাঠে নামার জন্য এক দু’দিন অনুশীলন দরকার।

৭ অক্টোবর প্রথম ম্যাচের আগে মাশরাফি তা পারবেন কি না? তা নিয়ে সংশয় থেকেই যাচ্ছে। তাই শঙ্কা, মাশরাফি কী ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজের শুরু থেকে খেলতে পারবেন?






মন্তব্য চালু নেই