মেইন ম্যেনু

ইউটিউব-ফেসবুকেও নিষিদ্ধ হচ্ছে নায়েকের বক্তব্য

বাংলাদেশে মুম্বাইভিত্তিক পিস টিভির সম্প্রচার বন্ধে প্রজ্ঞাপন জারির পর এবার অনলাইন, ইউটিউব ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকেও ভারতের বিতর্কিত ইসলামী বক্তা জাকির নায়েকের বক্তব্য বন্ধের উদ্যোগ নিয়েছে সরকার।

বাংলাদেশ ডাক ও টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে।

জঙ্গিদের দেয়া তথ্যানুযায়ী ভারতের বিতর্কিত ইসলামী বক্তা জাকির নায়েকসহ তিনজনের ‘উস্কানিমূলক বক্তব্য’ ইউটিউব থেকে সরিয়ে নেয়ার কাজ শুরু হয়েছে বলে বিটিআরসি’র কর্মকর্তা জানান।

এ বিষয়ে বিটিআরসি চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ বলেন, ‘উস্কানিমূলক বক্তব্যগুলো বন্ধ করছি। ইউটিউবসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এসব বক্তব্য চিহ্নিত করে সেই লিংক বন্ধের কাজ শুরু হয়েছে।ইউটিউব থেকে পিস টিভির জাকির নায়েকের ভিডিও’র ইউআরএল সরানোর কাজও শুরু হয়েছে।’

বাংলাদেশে পিস টিভির সম্প্রচার বন্ধে সোমবার (১১ জুলাই) প্রজ্ঞাপন জারি করে তথ্য মন্ত্রণালয়। আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটি বাংলাদেশে পিস টিভির সম্প্রচার বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয়ার পরদিন তথ্য মন্ত্রণালয় এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করলো।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, ‘মন্ত্রিসভা কমিটির সিদ্ধান্তের প্রেক্ষিতে ডাউন লিংকের শর্ত ভঙ্গ করায় বিদেশি ফ্রি-টু-এয়ার টিভি চ্যানেল পিস টিভির ডাউন লিংকের অনুমতি বাতিল করা হল।’

এতে বলা হয়, ‘বাংলাদেশের ভেতরে পিস টিভির সব ধরনের সম্প্রচার বন্ধের ব্যবস্থা নিতে সংশ্লিষ্ট সবাইকে অনুরোধ জানানো হল।’

তথ্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব (টেলিভিশন) আখতারুজ্জামান এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

ইসলামী সুবক্তা হিসেবে জাকির নায়েককে নিয়ে বিতর্ক নতুন নয়। জঙ্গিবাদের প্রতি সমর্থনসূচক বক্তব্য এবং ওহাবী মতবাদ প্রচারকারী হিসেবে অনেকেরই সন্দেহের তীর তার দিকে।

জাকির নায়েক পরিচালিত মুম্বাইভিত্তিক ইসলামিক রিসার্চ ফাউন্ডেশনের একটি প্রতিষ্ঠান পিস টিভি। এ টিভিতে ধর্ম নিয়ে আলোচনায় তার বিভিন্ন ব্যাখ্যা নিয়ে ‘বিতর্ক’ তৈরি হয় বিভিন্ন সময়ে।

গত ১ জুলাই গুলশানে জঙ্গি হামলার সঙ্গে জড়িতদের মধ্যে অন্তত ২ জন সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে জাকির নায়েকের মত ইসলামী বক্তাদের নিয়মিত অনুসরণ করতেন। তার কথায় ভারতীয় তরুণরাও আইএসে যোগ দিতে সিরিয়ায় পাড়ি জমাচ্ছে বলে জানা যায়।

এ বিষয়টি প্রকাশ্যে আসার পর জাকির নায়েকের বক্তব্য সম্পর্কে খোঁজ-খবর নিতে উদ্যোগী হয় ভারত সরকার। তদন্ত শুরু করে মহারাষ্ট্র রাজ্য সরকার জাকির নায়েকের প্রকাশিত বই, বক্তব্যের অডিও-ভিডিও সিডি। মুম্বাইয়ে তার অফিস ঘিরে মোতায়েন করা হয় পুলিশ।

ভারতের সম্প্রচারমন্ত্রী বেঙ্কাইয়া নাইডু শুক্রবার ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে বলেন, ‘আমরা অভিযোগ তদন্ত করছি। কারণ এটা আমাদের জাতীয় নিরাপত্তা, সেই সঙ্গে সামাজিক সম্প্রীতির জন্যও হুমকি।’

জাকির নায়েকের বিতর্কিত বক্তব্যে দক্ষিণ এশিয়ার অনেক তরুণ এইএসে যোগ দিচ্ছে- এমন অভিযোগে গত ৯ জুলাই ভারতে পিস টিভির সম্প্রচার নিষিদ্ধ করে দেশটির সরকার। এর দু’দিন পরই বাংলাদেশে বন্ধ হলো জাকির নায়েকের পিস টিভি।






মন্তব্য চালু নেই