মেইন ম্যেনু

ইউপি নির্বাচন: সংঘর্ষে কৃষি ব্যাংক কর্মী নিহত

গাইবান্ধায় নির্বাচনের ফল ঘোষণায় কারচুপির অভিযোগ এনে সড়ক অবরোধ করার সময় আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থকদের সঙ্গে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যদের সংঘর্ষ হয়েছে। এতে লেবু মন্ডল নামে কৃষি ব্যাংকের এক অফিস সহকারী নিহত হয়েছেন। তিনি আওয়ামী লীগ প্রার্থীর সমর্থক না বিদ্রোহী প্রার্থীর সমর্থক তা জানা যায়নি।

শনিবার দিবাগত রাত ৯টার দিকে সংঘর্ষে আহত হওয়ার পর রাত একটার দিকে রংপুর মেডিকেল কলেজ (রমেক) হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়।

লেবু মন্ডল রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার জামদানী গ্রামের আব্দুল কাদের মন্ডলের ছেলে। তিনি রাজশাহী কৃষি উন্নয়ন ব্যাংক (রাকাব) সাদুল্যাপুর উপজেলার ধাপেরহাট শাখার অফিস সহায়ক পদে কর্মরত ছিলেন।

জানা গেছে, আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী চেয়ারম্যান প্রার্থী রফিকুল ইসলাম নওশা নির্বাচনের ফলে কারচুপির অভিযোগ এনে সমর্থকদের নিয়ে ঢাকা-রংপুর মহাসড়কের ধাপেরহাট বন্দরের ফাইভ স্টার মোড় এলাকায় রাস্তায় গাছের গুড়ি ফেলে সড়ক অবরোধ করে রাখে।

খবর পেয়ে সাদুল্যাপুর উপজেলার ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) আবু রায়হান দোলনের নেতৃত্বে বিজিবি, পুলিশ ও আনসার সদস্যরা ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করার চেষ্টা করেন। কিন্তু অবরোধকারীরা বিক্ষোভ করে পুলিশের দুটি গাড়ি ভাঙচুর করে এবং তাদের ওপর হামলা চালায়। এতে ইউএনও ছাড়াও বিজিবি, পুলিশ ও আনসারের ৬ সদস্য আহত হন।

পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ ও বিজিবি পাল্টা টিয়ারশেল ছুড়লে মহাসড়কের ওপর আহত অবস্থায় লেবু মন্ডলকে পড়ে থাকতে দেখা যায়। প্রথমে তাকে পীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

সাদুল্যাপুর থানার ওসি ফরহাদ ইমরুল কায়েস জানান, টিয়ারশেল না অন্য কোনো কারণে লেবু মণ্ডলের মৃত্যু হয়েছে তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। তিনি আরও জানান, অন্যান্য আহতদের মধ্যে পুলিশ কনস্টেবল জাফরের অবস্থা আশঙ্কাজনক। তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।






মন্তব্য চালু নেই