মেইন ম্যেনু

ইডেন নয় যেন মিরপুর !

ইশ! ইডেন গার্ডেনের আসনসংখ্যা যদি ২৫ হাজার হত তাহলে পুরো মাঠটি লাল-সবুজের পতাকায় ছেয়ে যেত। তবুও এখন যা অবস্তা তাতে মনে হচ্ছে ইডেন নয় যেন মিরপুর শের-ই-বাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে খেলা হচ্ছে।

১৯৯০ সালের পর আজই প্রথম ভারতের ঐতিহ্যবাহী ইডেন গার্ডেনে খেলছে বাংলাদেশ। একে তো বিশ্বকাপ, অন্যদিকে পাকিস্তান। দুইয়ের মিশেলে ইডেন গার্ডেন বাংলাদেশের দখলে।৯০ হাজার দর্শক ধারণ ক্ষমতা সম্পন্ন স্টেডিয়ামটিতে প্রায় ২০ হাজার বাংলাদেশেশি সমর্থক জড়ো হয়েছেন। কে আসেননি সেটাও একটা বড় প্রশ্ন?

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের প্রায় সব পরিচালক ইডেনে হাজির। বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান পাপনের আসার কথা রয়েছে শুনেছি। সাংবাদিক! পাকিস্তান-বাংলাদেশের ম্যাচটি কভার করতে স্টেডিয়ামটির প্রেসবক্সও বাংলাদেশের দখলে। প্রিন্ট, অনলাইন, টিভির সাংবাদিকে প্রেসবক্সও ভরপুর। বিপিএলের চ্যাম্পিয়ন কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্সের চেয়ারম্যান নাফিসা কামাল খেলা দেখতে চলে এসেছেন কলকাতায়। কন্ঠশিল্পী শফিক তুহিন ও অভিনেতা নোবেলকে পাওয়া গেল লাল-সবুজ জার্সি পরা অবস্থায়।

বাংলাদেশের গাউছিয়া মার্কেটের ব্যবসায়ী সোহেল খানের এখানে এসে পরিচয়। ভারতে এসেছেন পণ্য কিনতে।বাংলাদেশের ম্যাচের টিকেট চাইলেও তাকে দেওয়া যায়নি। অবশেষে কালোবাজারীতে ১৫০ টাকায় টিকেট কিনে ইডেনে প্রবেশ করেছেন সোহেল খান। শুধু তাই না বাংলাদেশ ক্রিকেট সাপোর্টার এসোসিয়েশন (বিসিএসএ)এর প্রায় একশ ক্রিকেট পাগল সমর্থক বাংলাদেশ থেকে এসেছেন শুধুমাত্র বাংলাদেশ ক্রিকেট দলকে সমর্থন করতে। আছেন টাইগার শোয়েব ও টাইগার মিলন।

ক্রিকেটের প্রতি বাংলাদেশের উন্মাদনা সব সময় দেশের মাটিতে সবার চোখে পড়েছে। সেখানে ১ হাজার টাকার টিকেট ব্ল্যাকে ৫ হাজার টাকায়ও কিনেছে ‘ক্রিকেট পাগলরা’। তা দেখে বরাবরই অবাক হয়েছে ক্রিকেট বিশ্ব। এবার বিদেশের মাটিতে এক টুকরো বাংলাদেশ দেখে হয়তো বলেতে চাইবে ক্রিকেটে একটাই দেশ, ‘বাংলাদেশ’।






মন্তব্য চালু নেই