মেইন ম্যেনু

ইতিহাস গড়লেন হিলারি : ওবামার অভিনন্দন

যুক্তরাষ্ট্রের ২৪০ বছরের ইতিহাসে হিলারি ক্লিনটন হচ্ছেন প্রথম নারী যিনি দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থী হওয়ার যোগ্যতা অর্জন করেছেন। নভেম্বরে অনুষ্ঠেয় নির্বাচনে রিপাবলিকান প্রার্থী ডোনাল্ড ট্রাম্পকে পরাজিত করতে পারলে সে দেশের প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট হিসেবে আরও একটি ইতিহাস রচনা করবেন তিনি। এ ঘটনায় তাকে অভিনন্দন জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা।

ডেমোক্রেটদের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থিতা বাছাইয়ের লড়াই শেষ হয়েছে। সুপার টুইসডেতে অনুষ্ঠিত ছয়টি প্রাইমারির চারটিতেই জয় পেয়েছেন সাবেক মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিলারি ক্লিনটন। তবে গত সোমবারই তিনি প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রথম নারী প্রার্থী হিসেবে নিজের মনোনয়ন নিশ্চিত করেছেন। এখন দলের আনুষ্ঠানিক ঘোষণাটি কেবল সময়ের ব্যাপার মাত্র।

মঙ্গলবার শেষ ছয়টি অঙ্গরাজ্য রাজ্য যথা: ক্যালিফোর্নিয়া, নিউ জার্সি, মনটানা, সাউথ ডেকোটা, নর্থ ডেকোটা ও নর্থ মেক্সিকোতে ভোট অনুষ্ঠিত হয়। এইদিন ক্যালিফোর্নিয়া, নিউ জার্সি, সাউথ ডেকোটা ও নর্থ মেক্সিকোতে বিপুল ভোটে বিজয়ী পেয়েছেন হিরারি। তার একমাত্র প্রতিদ্বন্দ্বী বার্নি স্যান্ডার্স জয় পেয়েছেন বাকি দুটি অঙ্গরাজ্যে।

এর আগে রোববার পুয়ের্তো রিকো প্রাইমারিতে বড় জয় পাওয়ার পরই তার ডেমোক্রেট দল থেকে মনোনয়ন পাওয়ার বিষয়টি অনেকটা নিশ্চিত হয়ে যায়। এই নির্বাচনের পরই তিনি প্রয়োজনীয় ২ হাজার ৩৮৪ ডেলিগেটের সমর্থন পেয়েছিলেন।

এদিকে মঙ্গলবারের নির্বাচনে জয়লাভ এবং যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে প্রথম নারী প্রেসিডেন্ট প্রার্থী হওয়ার যোগ্যতা অর্জন করায় নিজের সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা। এক বিবৃতিতে তিনি বলেন,‘তার এই ঐতিহাসিক বিজয় লক্ষ কোটি মার্কিনীকে অনুপ্রেরণা যোগাবে। তিনি এতদিন ধরে দেশের মধ্যবিত্ত মানুষ ও শিশুদের অধিকারের জন্য যে সংগ্রাম করেছেন আজ তার সুফল পেলেন।’

নিজের এই ঐতিহাসিক মুহূর্তে ব্রুকলেনে সমর্থকদের উদ্দেশে দেয়া বিবৃতিতে হিলারি বলেছেন,‘আমরা আমাদের মাইলফলক ছুঁতে পেরেছি। এজন্য সবাইকে ধন্যবাদ। এটা কোনো একজনের বিজয় নয়। এই প্রজন্মের নারী-পুরুষ নির্বিশেষে সকলের সংগ্রাম ও আত্মত্যাগের জন্যই আজকে আমরা এই মুহূ্র্তটি তৈরি করতে পেরেছি।’






মন্তব্য চালু নেই