মেইন ম্যেনু

ইনি আইআইটি প্রফেসর, সাইকেল চেপে খোঁজ নেন আদিবাসীর

সাইকেলে চষে বেড়ান আদিবাসী গ্রাম, ইনি আইআইটি প্রফেসর। রঘুরাম রাজনের মাস্টারমশাই।

তার হাতে গড়া ছাত্র রিজার্ভ ব্যাঙ্কের সাবেক গর্ভনর। কিন্তু কেমন আছেন রঘুরাম রাজনের সাগর স্যার?
পুরো নাম অলোক সাগর।

আইআইটি দিল্লি থেকে স্নাতক। পিএইচডি হিউস্টন থেকে। কিন্তু তার একমাত্র লক্ষ্য আদিবাসী মানুষদের উন্নয়ন।

৩২ বছর ধরে মধ্যপ্রদেশের এক প্রত্যন্ত গ্রাম কোচামুতে রয়েছেন তিনি। সেখানকার মানুষের সেবা, তাদের পাশে দাঁড়ানোই তার জীবনের অন্যতম লক্ষ্য।

সাগর স্যারের ছাত্রছাত্রীরা অনেকেই আজ সফল। তাদের খ্যাতি আকাশ ছুঁয়েছে। তাদেরই একজন রঘুরাম রাজন। কিন্তু শিষ্যদের খ্যাতির আলো থেকে নিজেকে অনেক দূরেই রেখেছেন সাগর।

তার সমস্ত ভাবনা এখন কোচামুর ৭৫০ জন আদিবাসী মানুষকে ঘিরে। সেই গ্রামে মাত্র একটি প্রাথমিক বিদ্যালয়।

নেই বিদ্যুৎ, পাকা রাস্তাঘাটও নেই। সেরকম জায়গার মানুষের উন্নয়নই এ মানুষটির লক্ষ্য। গ্রামে গ্রামে ঘুরে মানুষদের গাছের চারা, বীজ বিলি করেন তিনি। প্রতিবছর সেখানে ৫০ হাজারেরও বেশি গাছ লাগানোর উদ্যোগ নেন তিনি।

সাধারণ কুর্তা পরা সাইকেল নিয়ে গ্রামে ঘুরে বেড়ানো মানুষটি কে তা জানতই না স্থানীয় প্রশাসন। সম্প্রতি জেলা নির্বাচনের সময় তার কাজকর্ম সন্দেহজনক মনে হয় তাদের কাছে।

তখনই খোঁজ-খবর করে দেখা যায় তার কোয়ালিফিকেশন-গ্রাফ। জেলা প্রশাসন পরীক্ষা করে দেখে ওই ব্যক্তির সমস্ত দাবিই ঠিক। দেশ-বিদেশি বহু ভাষা জানা তার। জানেন বহু আদিবাসী জনজাতির ভাষাও।

সাগর জানান, দেশের মানুষের সমস্যার শেষ নেই। কিন্তু একাংশ নিজেদের ডিগ্রির বুদ্ধিমত্তা জাহির করতেই ব্যস্ত। আমজনতার কথা ভাবার সময় নেই তাদের।






মন্তব্য চালু নেই