মেইন ম্যেনু

ইন্টারনেট স্লো? শরীরের কতটা ক্ষতি হচ্ছে জানেন কি…

ব্যস্ত সময়ে ইন্টারনেট পরিষেবার ধীর গতি কিংবা ভিডিও চলার সময় বাফারিং মোবাইল ইউজারদের মানসিক চাপ আরও বাড়িয়ে দেয়। সম্প্রতি প্রযুক্তি পরিষেবা দেয় এমন সংস্থার সমীক্ষায় এমনটাই চাঞ্চল্যকর তথ্য উঠে এসেছে। গবেষণায় দেখা গিয়েছে, ঝঞ্ঝাটহীন ইন্টারনেট ব্যবহার ও ভিডিও ইউজারদের অনেক বেশি হাসিখুশি রাখে। এমনকি, মানসিক চাপও লক্ষ করা যায় না।

বেশ কয়েকজন ইউজারের উপর চালানো ওই সংস্থার সমীক্ষায় উঠে এসেছে, সময়ের চাপ থাকাকালীন যদি ওয়েব পেজ লোড কিংবা ভিডিও লোড হতে দেরি হয়, তাহলে মোবাইল ইউজারদের হৃৎস্পন্দন গড়ে ৩৮ শতাংশ বেড়ে যায়। এছাড়া ভিডিও স্ট্রিমিংয়ের ক্ষেত্রে ছয় সেকেন্ড দেরি ইউজারদের উপর চাপের মাত্রা এক-তৃতীয়াংশ বাড়িয়ে তোলে। গবেষণায় আরও বলা হয়েছে, একবার একটি ভিডিও শুরু হবার পর অতিরিক্ত বিরতি গ্রাহকের চাপের মাত্রাকে নাটকীয়ভাবে বাড়িয়ে তুলতে পারে। কিন্তু নেট পরিষেবার ক্ষেত্রে যদি এই সমস্যা ইউজারদের না ফেস করতে হয়, তাহলে একদিকে যেমন ইউজারদের কর্মদক্ষতা বাড়ে, তেমনই কাজে বা ভিডিও দেখার সমস্ত আনন্দ পান তারা।






মন্তব্য চালু নেই