মেইন ম্যেনু

ইবোলার পর এবার লেসা জ্বর

ইবোলা ভাইরাসের মতো নাইজেরিয়ায় লেসা জ্বরের প্রাদুর্ভাব ঘটেছে। গত বছর শেষের দিকে নাইজেরিয়ায় শুরু হওয়া এই লেসা জ্বরে এ পর্যন্ত ৫৭ জন আক্রান্ত হয়েছেন এবং ৩৪ জন মারা গেছেন।

ইঁদুরের মাধ্যমে ছড়ানো লেসা জ্বরের লক্ষণ অনেকটা ইবোলা ভাইরাসের লক্ষণের মতো। ১৯৬৯ সালে এটি ইন্দোনেশিয়ার বোর্নিও লোসা অঞ্চলে প্রথম দেখা যায়। ওই এলাকার নাম অনুসারেই এর নাম লেসা জ্বর দেওয়া হয়। এটি ইবোলার মতোই ছোঁয়াচে রোগ।

নাইজেরিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী আইজাক আদিওলি জানিয়েছেন, গত বছরের নভেম্বর থেকে গত সপ্তাহ পর্যন্ত ২১২ জন সন্দেহভাজন রোগীর নাম রেকর্ড করা হয়েছে।

ইউএস সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন ডিভিশন জানিয়েছে, প্রতিবছরই পশ্চিম আফ্রিকায় লেসা জ্বরের প্রাদুর্ভাব দেখা যায়। এক লাখ থেকে তিন লাখ লোক প্রতিবছর এ রোগে আক্রান্ত হয়। এদের মধ্যে প্রায় পাঁচ হাজার জন চিকিৎসা নেওয়ার পর মারা যায়।

প্রসঙ্গত, ২০১৩ সালে পশ্চিম আফ্রিকায় ইবোলা মহামারিতে ১১ হাজার মানুষ মারা যায়। নাইজেরিয়ায় এ রোগে আক্রান্ত হয়ে মারা যায় ৮ জন।






মন্তব্য চালু নেই