মেইন ম্যেনু

ইমরুলের বাদ পড়াকে ‘দুর্ভাগ্য’ বলছেন মাশরাফি

ভয়াবহ রানখরায় থেকেও তামিমের সঙ্গে ওপেন করেন সৌম্য। আর প্রথম ম্যাচে সাবলীল ব্যাটিং করেও দ্বিতীয় ম্যাচে বেঞ্চে বসে থাকতে হয় ইমরুল কায়েসকে। মাশরাফি ম্যাচ শেষে বললেন, ‘দুর্ভাগ্যবশত ও বাদ পড়েছে। কম্বিনেশন ঠিক রাখতে ইমরুলকে বাইরে রাখার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।’

আফগানিস্তানের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডেতে ৩৭ রান করেছিলেন ইমরুল কায়েস। শুরুতেই সৌম্য সরকার আউট হওয়ার পর তামিম ইকবালকে নিয়ে ধাক্কা সামলান। এই সিরিজের আগে বাংলাদেশের সর্বশেষ দুই ওয়ানডেতেও ইমরুলের রান ছিল ৭৬ ও ৭৩।

‘সাম্প্রতিক সময়ে সৌম্যর ফর্ম হয়ত আগের মত যাচ্ছে না, তবে শেষ এক-দেড় বছরে ওর গড় ৪৫-এর মতো। আমরা সৌম্যকে প্রেফার করছিলাম।’ মন্তব্য মাশরাফির।

শেষদিকে বাংলাদেশ ভালো একজন ব্যাটসম্যান খেলাতে চেয়েছিল বলেও জানান অধিনায়ক, ‘সাত নম্বরে জেনুইন ব্যাটসম্যান রাখতে চেয়েছিলাম। আর চারে আমরা মুশফিককে খেলাতে চেয়েছিলাম, কারণ চারে ও ভালো করছিল। প্রস্তুতি ম্যাচগুলোতেও এই পজিশনে ভালো করেছিল। এসব চিন্তা করে ইমরুলকে খেলানো হয়নি। ওর জায়গা থেকে এটা অবশ্যই হতাশাজনক। আশা করছি, সামনে খেললে ও আরও ভালো করবে।’

বাংলাদেশ গতকাল ৪৯.২ ওভারে সবকটি উইকেট হারিয়ে ২০৮ রান করে। অভিষিক্ত মোসাদ্দেক শেষ দিকে ৪৫ রান করে লড়াইয়ের স্কোর এনে দেন দলকে। পরে বল হাতেও দুই উইকেট নেন এই তরুণ। কিন্তু শেষ পর্যন্ত ২ উইকেটের হার দেখতে হয় তাকে।






মন্তব্য চালু নেই