মেইন ম্যেনু

ইমামের খাটের নিচে মাটির গর্তে জীবিত সেই শিশু আজ আদালতে!

বহু খোঁজাখুঁজির পর অবশেষে মসজিদের ইমামের খাটের নিচে মাটির গর্ত থেকে উদ্ধার হওয়া পুরোহিতের জীবিত শিশু পল্লবকে চিকিৎসা শেষে আজ বৃহস্পতিবার আদালতে হাজির করা হয়।

আদালতে এ ঘটনায় গ্রেফতারকৃত ইমাম রবিউলের ১০ দিনের রিমান্ড চেয়ে আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা রায়গঞ্জ থানার উপপরিদর্শক (এসআই) আশফাক।

তিনি জানান, এ ব্যাপারে ইমাম রবিউলকে একমাত্র আসামি করে মামলা দায়ের করা হয়েছে। শিশু পল্লবের ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি গ্রহণের জন্য বৃহস্পতিবার আদালতে হাজির করা হয়। রিমান্ড শুনানির জন্য আগামী রোববার ধার্য করেছেন আদালত।

সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জে অপহৃত হওয়ার ৪দিন পর ৩ বছরের শিশু পল্লবকে মাটির গর্ত থেকে জীবিত উদ্ধার করা হয়।

বুধবার বিকেলে উপজেলার ব্রহ্মগাছা বাজার জামে মসজিদ সংলগ্ন ইমাম রবিউল ইসলামের বিশ্রামখানার খাটের নিচে মাটির গর্ত থেকে তাকে উদ্ধার করা হয়।

এলাকাবাসী জানান, ওই মসজিদের জনৈক খাদেম শিশুটির কান্নার আওয়াজ পান। বিশ্রামখানা তালাবদ্ধ থাকায় ব্রহ্মগাছা ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম ছরওয়ার লিটনকে খবর দেন তিনি।

চেয়ারম্যন বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত হয়ে রায়গঞ্জ থানা পুলিশকে জানান। খবর পেয়ে রায়গঞ্জ থানার ওসি মাহবুবুল আলম, পরিদর্শক (তদন্ত) মোমেনুল ইসলামসহ পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ইমামের শয়ন কক্ষের তালা ভেঙে ভেতরে ঢোকেন।

পুলিশ, ইউপি সদস্য আবদুর রাজ্জাক ও স্থানীয় জনগণের সহযোগীতায় ওই কক্ষের খাটের নিচে তৈরিকৃত মাটির গর্ত (বাঙ্কার অনুরূপ) খুঁড়ে শিশুটিকে মুমূর্ষু অবস্থায় উদ্ধার করেন।

উদ্ধারকৃত শিশু পল্লবকে চিকিৎসার জন্য রায়গঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তির আজ আদালতে হাজির করা হয়।

তার চিকিৎসায় দায়িত্বরত ডা. জাকারিয়ার জানান, শিশুটি এখন আশঙ্কামুক্ত।

উল্লেখ্য, পুরোহিত পরিবারের একমাত্র শিশু-সন্তান পল্লব চক্রবর্তী গত ২১ আগস্ট সকালে অপহৃত হয়। পুলিশ ঘটনার পরদিন সকালে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ইমাম রবিউল ইসলামকে আটক করে।

জিজ্ঞাসাবাদে ওই ইমামের কথাবার্তায় অসঙ্গতি হওয়ায় তাকে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়।






মন্তব্য চালু নেই