মেইন ম্যেনু

ইসলামী ব্যাংকের কেউ চাকরিচ্যুত হবে না

ইসলামী ব্যাংকে মেধা, যোগ্যতা ও অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে পদোন্নতি ও পদায়ন করা হবে। কাউকে চাকরিচ্যুত করা হবে না বলে পরিচালনা পর্ষদ একমত হয়েছে।

সম্প্রতি অনুষ্ঠিত ব্যাংকের বোর্ড অব ডাইরেক্টরসের সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। এ সময় ব্যাংকের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান আরাস্তু খান ও পরিচালকরা উপস্থিত ছিলেন। বুধবার ব্যাংকটির এক বার্তায় এ তথ্য জানানো হয়।

সম্প্রতি ইসলামী ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদ ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক পরিবর্তনের পর উপ-ব্যবস্থাপনা পদেও (ডিএমডি) চলছে ব্যাপক রদবদল আর পদোন্নতি। ইতোমধ্যে পদোন্নতি দেয়া হয়েছে চার ডিএমডিকে। এছাড়া শতাধিক পদে রদবদল হয়েছে। নতুন এমডি আবদুল হামিদ মিঞা দায়িত্ব নেয়ার পরই ব্যাংকের বিভিন্ন পদে পরিবর্তন এসেছে। এতে আতঙ্কে রয়েছেন কর্মকর্তারা।

এর পরিপ্রেক্ষিতে বুধবার ব্যাংকটি জানায়, ব্যাংকের শরিয়াহ নীতিমালা ও মৌলিক মূল্যবোধ অক্ষুণ্ণ রেখে পরিচালিত হবে। কোনোভাবেই এর ব্যত্যয় ঘটবে না। শরিয়াহ পরিপালনের ক্ষেত্রে জিরো টলারেন্স নীতি অনুসরণ করা হবে।

জনবল লোক নিয়োগের ক্ষেত্রে মুক্তিযোদ্ধাদের সন্তানসহ জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে মেধা ও যোগ্যতার ভিত্তিতে অভিজ্ঞ, নিরপেক্ষ ও পেশাদারদের নিয়োগ দেয়া হবে। এছাড়া নারীর ক্ষমতায়নের লক্ষ্যে নারী অফিসার নিয়োগ বাড়ানো এবং ব্যাংকিং সেক্টরে অন্যান্য ব্যাংকের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে কর্মকর্তা-কর্মচারীদের বেতন কাঠামো বাড়ানোসহ পুনর্বিন্যাসের সিদ্ধান্ত নিয়েছে ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদ।

উল্লেখ্য, পর্ষদ সভায় ব্যাংকের চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যান, এমডিসহ ইসলামী ব্যাংক ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান পরিবর্তন করা হয়। সরকারের উচ্চপর্যায়ের সিদ্ধান্তে ইসলামী ব্যাংক জামায়াতমুক্ত করতেই ইসলামী ব্যাংকে বড় পরিবর্তন করা হচ্ছে বলে বিভিন্ন সূত্রে জানা যায়।

একই সঙ্গে ব্যাংকটির অন্যান্য পদেও পরিবর্তন আসছে। এর ধারাবাহিকতায় ব্যাংকটির ডেপুটি ম্যানেজিং ডাইরেক্টর হিসেবে মোহাম্মদ মুনিরুল মওলা, মুহাম্মদ মোহন মিয়া, মোহাম্মদ আলী ও আবু রেজা মো. ইয়াহিয়াকে পদোন্নতি দেয়া হয়। এর আগে তারা ব্যাংকের এক্সিকিউটিভ ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।






মন্তব্য চালু নেই